০১:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে বাড়ছে ডায়রিয়া ও ঠান্ডা জনিত বিভিন্ন রোগ

ইমরান মনিম, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীতে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে দেখা দিয়েছে শীতের প্রকোপ।শীতের কারনে ঠান্ডা জনিত ডায়রিয়া, শর্দি, কাশি, জ্বরসহ বভিন্ন রোগের প্রাদুর্ভাব। প্রতিদিন শত শত রোগী ডায়রিয়াসহ এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালে। রোগীর চাপে হাসপাতালের মেঝে দিতে হচ্ছে চিকিৎসা সেবা।

রাজবাড়ীতে গত এক সপ্তাহ ধরে শীত পড়তে থাকায় ঠান্ডা জনিত রোগীর চাপ বাড়ছে। প্রতিদিনই শীতের প্রকোপে আউটডোর ও ইনডোরে শত শত রোগী চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। ডায়রিয়া, শর্দি, কাশি, জ্বর সহ বিভিন্ন ধরনের ঠান্ডা জনিত রোগী এখন হাসপাতালে বেশি ভর্তি হচ্ছে। একশো বেডের হাসপাতালে প্রতিদিন দের থেকে দুইশো রোগী  ভর্তি থাকতে হচ্ছে।রোগীর চাপ বেশি থাকায় হাসপাতালের বেড ছাড়িয়ে মেঝেতে চিকিৎসা সেবা নিতে হচ্ছে রোগীদের।আর আউট ডোরে প্রতিদিন ঠান্ডা জনিত রোগী সহ হাজারেরও বেশি রোগী চোখ কিৎসা নিচ্ছেন।

বর্তমানে ২০ বেডের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ৩৫ জন রোগী ভর্তি রয়েছে।এর মধ্যে ২২ জন শিশু ও ১২ জন বয়ষ্ক রোগী রয়েছে। এসব রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে বেডের সংকটে মেঝে চিকিৎসা সেবা নিতে হচ্ছে অতিরিক্ত রোগীর চাপে।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসা রোগী রহিমা বেগম বলেন, শীতের কারনে শিশু বাচ্চার বার বার পাতলা পায়খানা ও বমি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।ডাক্তাররাও রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন।তবে বেড না থাকায় ফ্লোরে চিকিৎসা নিচ্ছি। প্রয়োজনীয় ঔষধ  দিচ্ছেন হাসপাতাল থেকে জানান তারা।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের শিশু কনসালটেন্ট রোমেনা আক্তার বলেন, প্রতিবছরই শীতে ডায়রিয়া সহ বিভিন্ন ঠান্ডা জনিত রোগীর চাপ বাড়ে।শীতে শিশুদের হযম শক্তি কমে যাওয়া ও যে সকল শিশুদের মায়ের বুকের ধুধের পরিবর্তে বাজারের বিভিন্ন কৌটা জাতীয় দুধ খাওয়াচ্ছেন তাদের ডায়রিয়া আক্রান্ত বেশি হচ্ছে।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

রাজবাড়ীতে বাড়ছে ডায়রিয়া ও ঠান্ডা জনিত বিভিন্ন রোগ

পোস্ট হয়েছেঃ ০৬:০৩:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

ইমরান মনিম, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীতে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে দেখা দিয়েছে শীতের প্রকোপ।শীতের কারনে ঠান্ডা জনিত ডায়রিয়া, শর্দি, কাশি, জ্বরসহ বভিন্ন রোগের প্রাদুর্ভাব। প্রতিদিন শত শত রোগী ডায়রিয়াসহ এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালে। রোগীর চাপে হাসপাতালের মেঝে দিতে হচ্ছে চিকিৎসা সেবা।

রাজবাড়ীতে গত এক সপ্তাহ ধরে শীত পড়তে থাকায় ঠান্ডা জনিত রোগীর চাপ বাড়ছে। প্রতিদিনই শীতের প্রকোপে আউটডোর ও ইনডোরে শত শত রোগী চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। ডায়রিয়া, শর্দি, কাশি, জ্বর সহ বিভিন্ন ধরনের ঠান্ডা জনিত রোগী এখন হাসপাতালে বেশি ভর্তি হচ্ছে। একশো বেডের হাসপাতালে প্রতিদিন দের থেকে দুইশো রোগী  ভর্তি থাকতে হচ্ছে।রোগীর চাপ বেশি থাকায় হাসপাতালের বেড ছাড়িয়ে মেঝেতে চিকিৎসা সেবা নিতে হচ্ছে রোগীদের।আর আউট ডোরে প্রতিদিন ঠান্ডা জনিত রোগী সহ হাজারেরও বেশি রোগী চোখ কিৎসা নিচ্ছেন।

বর্তমানে ২০ বেডের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ৩৫ জন রোগী ভর্তি রয়েছে।এর মধ্যে ২২ জন শিশু ও ১২ জন বয়ষ্ক রোগী রয়েছে। এসব রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে বেডের সংকটে মেঝে চিকিৎসা সেবা নিতে হচ্ছে অতিরিক্ত রোগীর চাপে।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসা রোগী রহিমা বেগম বলেন, শীতের কারনে শিশু বাচ্চার বার বার পাতলা পায়খানা ও বমি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।ডাক্তাররাও রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন।তবে বেড না থাকায় ফ্লোরে চিকিৎসা নিচ্ছি। প্রয়োজনীয় ঔষধ  দিচ্ছেন হাসপাতাল থেকে জানান তারা।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের শিশু কনসালটেন্ট রোমেনা আক্তার বলেন, প্রতিবছরই শীতে ডায়রিয়া সহ বিভিন্ন ঠান্ডা জনিত রোগীর চাপ বাড়ে।শীতে শিশুদের হযম শক্তি কমে যাওয়া ও যে সকল শিশুদের মায়ের বুকের ধুধের পরিবর্তে বাজারের বিভিন্ন কৌটা জাতীয় দুধ খাওয়াচ্ছেন তাদের ডায়রিয়া আক্রান্ত বেশি হচ্ছে।