September 25, 2021, 4:22 pm
Title :
রাজবাড়ীতে পদ্মার গর্ভে বিলীন চরনিসিলিমপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন সংবাদ সম্মেলন জেলা আ.লীগের সভাপতি প্রার্থীতা ঘোষনা দিলেন সাংসদ কাজী কেরামত রাজবাড়ীতে বাইসাইকেল পেলো ৯৮ গ্রাম পুলিশ গোয়ালন্দে মাদক সেবনকারী ৫ ব্যাক্তিকে ৩ মাস করে কারাদণ্ড প্রদান পাংশায় মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজের দুই দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার রাজবাড়ীতে বিদুৎ স্পর্শে ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মৃত্যু রাজবাড়ীতে আ.লীগের বর্ধিত সভাঃ ‘দলকে শক্তিশালী করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান’ গোয়ালন্দে ভ্রাম্যমাণ আদালত কতৃক মুরগীর খামারীকে জরিমানা প্রয়াত নুরু মন্ডলের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহ্ফিল ও স্বরণ সভা রাজবাড়ীতে স্বপ্নচূড়া’র আয়োজনে শাহ আব্দুল করিমে’র মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে লঞ্চে সকাল থেকেই মানুষের ভিড়

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১
  • 46 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ ব্যবসায়ীদের অনুরোধে রোববার থেকে সারা দেশের রপ্তানিমুখী শিল্প কারখানা খুলে দেওয়ায় গতকাল শনিবার থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে হাজার শ্রমজীবি মানুষ ছুটতে থাকে। আর এসব মানুষ মহাসড়ক ও ফেরি ঘাটে এসে মহা দুর্ভোগে পড়েন। এসব মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) অনুরোধে শনিবার রাত ৮টার পর থেকে শুরু হয়েছে গণপরিবহন ও লঞ্চ চলাচল।

তবে রাতে গণপরিবহনে যাত্রী না থাকায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে লঞ্চ চলেনি। রোববার ভোর ৬ টা থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু হলেও প্রথম দিকে যাত্রী তেমন ছিলনা। তবে সকাল ৯ টার দিকে যাত্রীর চাপ বাড়তে থাকে। মাঝেমধ্যে মানুষের ভিড়ে লঞ্চ ঘাটেরর পন্টুনে দাড়ানোর জায়গা ছিল না। তবে লঞ্চ চলাচলে সময় বাড়ানোর দাবী করেছেন লঞ্চ ঘাট শ্রমিকেরা।

মাগুরা থেকে নবীনগরগামী পোশাক শ্রমিক ইসমাঈল হোসেন বলেন, শনিবার সকাল থেকে মানু্ষের ভিড় দেখে ভয়ে আর বের হয়নি। সন্ধ্যার লঞ্চ ও গণপরিবহন চালু হওয়ার খবর পেয়ে রাতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল করি। তবে গণপরিবহন না পাওয়ায় মাহেন্দ্রে করে ঘাটে আসি।

রাজবাড়ীর পাংশার আলামিন হোসেন বলেন,  ফেরি ঘাটের ভয়াভহ চিত্র দেখে গতকাল রওয়ানা করিনি। বসকে পরিস্থিতি বুঝিয়ে আজ সকালে আমরা কয়েকজন জনপ্রতি ২০০ টাকা করে মাহেন্দ্রের ভাড়া দিয়ে ঘাটে আসি। আগামীকাল অফিসে যোগদান করবো।

পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়ায় আসা লঞ্চ এমভি ফ্লাইংবার্ড এর মাস্টার শহিদ সিকদার বলেন, দৌলতদিয়া ঘাট থেকে কিছু যাত্রী পাচ্ছি। এখন সবাই ঈদের পর কর্মস্থলে যাচ্ছেন। ফেরার পথে যাত্রী কিছু বেশি যাবেই। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী তোলার চেস্টা করছি।

লঞ্চ ঘাটে পুলিশ সদস্য সাইদুর রহমান বলেন, জনবল কম থাকায় নৌপুলিশের পক্ষ থেকে তিনি একা ডিউটি করছেন। আরো কয়েকজন ফেরি ঘাটে ডিউটি করছেন। গতকাল তো আমরা ফেরি ঘাটে দাড়াতেই পারিনি। তবুও আজ তো অনেকটা স্বাভাবিক আছে।

যাত্রীরা দুর্ঘটনার শিকার হলে তাৎক্ষনিক দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স এর দল। গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স এর ইনচার্জ সাব অফিসার গোলাম সারওয়ার বলেন, লঞ্চ চললে আমাদের ডিউটি করতে হয়। যে কোন ধরনের দুর্ঘটনা ঠেকাতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। যতক্ষণ লঞ্চ চলবে পর্যায়ক্রমে ততক্ষণ আমরা ঘাটে থাকবো।

লঞ্চ মালিক সমিতির দৌলতদিয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত তত্বাবধায়ক নুরুল আনোয়ার মিলন বলেন, রাতে লঞ্চ চালুর অনুমতি দিলেও গণপরিবহন না চলায় যাত্রী আসেনি। দিনে অধিকাংশ মানু্ষ ফেরিতে পাড়ি দেওয়ায় রাতে লঞ্চ চলেনি। লঞ্চের অধিকাংশ শ্রমিক ছিল বাড়িতে তাদের আসতেও তো সময় লাগবে। সকালে লঞ্চ ঘাটে যাত্রীর চাপ তেমন ছিল না। তবে বেলা বাড়ার সাথে ভিড় বাড়তে থাকে।

বিআইডব্লিউটিএ আরিচা কার্যালয়ের ট্রাফিক পরিদর্শক আফতাব উদ্দিন বলেন, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক লঞ্চ চলাচল করতে বলেছি। এক্ষেত্রে সময় বাড়ানো হবে কি না তা এ ধরনের কোন নির্দেশনা আসেনি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102