May 21, 2022, 12:12 am
শিরোনামঃ
রাজবাড়ীতে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তর সরবরাহকারী চক্রের ১৩ সদস্য আটক গোয়ালন্দে পদ্মার ভাঙনঃ থেমে আছে ঘাট আধুনিকায়ন কাজ রাজবাড়ীতে টিকা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ কর্মশালা কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা

রাজবাড়ীতে সংক্রমণ বাড়লেও বাড়েনি সচেতনতা

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, জুলাই ১০, ২০২১
  • 376 Time View
শেয়ার করুনঃ
শামিম রেজা, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীতে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। সেই সাথে বাড়ছে মৃত্যুও। করোনা সংক্রমণ রোধে চলছে কঠোর লকডাউন। মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সচেতন করতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে পুলিশ, বিজিবি, র্যাব ও সেনাবাহিনী। সেই সাথে তৎপর রয়েছেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরাও। এরপরও স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রতিযোগীতায় নেমেছে সাধারণ মানুষ।
সরেজমিন রাজবাড়ী বাজার ঘাট ঘুরে দেখা যায়, কাঁচা বাজার গুলো দেখে বোঝার উপায় নেই যে দেশে করোনা সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউন চলছে। পরিস্থিতি দেখে মনে হবে সব কিছু স্বাভাবিক। গাদাগাদি করেই চলছে বেচা-কেনা। স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দূরত্ব একেবারেই মানা হচ্ছে না। ক্রেতা-বিক্রেতার অনেকের মুখেই নেই মাস্ক। অনেকের থাকলেও রয়েছে সেটা গলায় ঝুলানো অথবা পকেটে । এদিকে ফামেসী ও চায়ের দোকানে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। এক জনের ব্যবহৃত কাপে আরেকজন চা পান করছে। একটা সিগারেট দুই জন এমনকি তিনজনও ভাগাভাগি করে নিচ্ছে। ফামেসীগুলোতে লেগে আছে ভীড়। কোন প্রকার বিধি নিষেধ মানা হচ্ছে না। এক জনের গায়ের সাথে গা ঘেষাঘেষি করেই ঔষুধ কিনতে দেখা গেছে। কিছুক্ষণ পরপরই পুলিশ, সেনাবাহিনীর গাড়ি হুইসেল বাজিয়ে টহল দিচ্ছে। প্রশাসনের গাড়ির শব্দে দোকানের শাটার বন্ধ করছে। একত্রিত হওয়া জনগণ নিরাপদে চলে যাচ্ছে। এরপর ওই এলাকা থেকে প্রশাসন চলে যাওয়ার পরে আবার আগের অবস্থা। এ যেন চোর পুলিশ খেলার মত দৃশ্য।
শাকিবুল ইসলাম নামে একজন ক্রেতা জানান, কাঁচাবাজার করতে এসেছি। যে দোকান থেকে সবজি নিয়েছি সেখানে সে মাস্ক ব্যবহার করলেও আশপাশের অনেকের মুখেই ছিলো না মাস্ক। এমনকি বিক্রেতার মুখেও ছিলো না মাস্ক।
আরিফুজ্জামান নামে আরেক ক্রেতা জানান, প্রশাসন শুধু সড়কে রয়েছে। বাজারে নেই। মাছ বাজার, কাঁচা বাজার দেখে কেউ কি বলবে কঠোর লকডাউন চলছে। গা ঘেষাঘেরি করেই বাজার ঘাট করতে হচ্ছে। উপায় নেই। এই হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজার করা।
হেলেনা বেগম জানায়, তার স্বামী অসুস্থ্য হাসাপাতালে ভর্তি। কিছু ঔষুধ কেনার জন্য বাজারে এসেছি। ঔষুধের দোকানে প্রচুর ভিড়। ইচ্ছা থাকলেও স্বাস্থ্যবিধি মানতে পারি নাই। কারণ দ্রুত অসুস্থ্য স্বামীর জন্য ঔষুধ নিয়ে যেতে হবে।
রেলগেট চত্ত্বরের একটি চায়ের দোকানে কথা হয় মামুন সরদারের সাথে তিনি জানান, বাসা থেকে বেড়ই হইনা। আজ একটু বেড় হয়েছি। একটি সিগারেট আর এককাপ চা পানের জন্য। বাসায় বসে তো আর সিগারেট খাওয়া যাবে না। সেখানে বাবা-মা, ভাই আছে। তাই একটু বেড় হতে হয়।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি শাহাদত হোসেন জানান, সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য পুলিশ মাঠে কাজ করছে। বিভিন্ন পয়েন্টে রয়েছে চেকপোষ্ট। মোটরসাইকেলে দুইজন উঠলেই তাদের জরিমানা অথবা একজনকে নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া জরুরি কারণ ছাড়া বাইরে বের হয়েছে তাদেরকে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102