May 20, 2022, 10:33 pm
শিরোনামঃ
গোয়ালন্দে পদ্মার ভাঙনঃ থেমে আছে ঘাট আধুনিকায়ন কাজ রাজবাড়ীতে টিকা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ কর্মশালা কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের দাম বাড়লেও লোকসানে চাষিরা

স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই খানখানাপুর বাজারে, করোনা ঝুঁকি নিয়ে চলছে বেচাকেনা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, জুলাই ২, ২০২১
  • 100 Time View
শেয়ার করুনঃ
মইন মৃধা, গোয়ালন্দঃ মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশে চলছে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন। দিন দিন সংক্রমণ ব্যাপকহারে বাড়ায় স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা বেশির ভাগ মানুষ। করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাঁচাবাজারগুলোতে এখনো গাদাগাদি করে বেচা কেনা চলছে। এতে নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় থাকছে না।
শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুরে খানখানাপুর  কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, সবজি, মাছ, মুদি, ফল বিক্রেতাসহ অধিকাংশ দোকানদার মাস্ক ছাড়া পণ্য বিক্রি করছেন। একই সঙ্গে মাস্ক ছাড়াই কেনাকাটা করছেন ক্রেতারা।
মানছেন না নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব। ক্রেতাদের কারো কারো মুখে মাস্ক থাকলেও বিক্রেতাদের বেশির ভাগের মুখে মাস্ক নেই। অনেকে মাস্ক পরলেও তা নিদিষ্ট স্থানে থেকে নামিয়ে রাখতে দেখা গেছে৷ এছাড়া বাজারে ছোট ছোট চায়ের দোকানে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। দূরত্ব বজায় না রেখেই এসব চলতে দেখা গেছে।
এক মুদি দোকানি বলেন, লকডাউনের খবরে দুই দিন মানুষ আখেরি কেনাকাটা করেছে। মানুষকে বলেও স্বাস্থ্যবিধি মানানো যায় না। কার আগে কে সদাই নেবে সে প্রতিযোগিতায় সব কিছু ভুলে যায়। যদিও বলা হয় দূরত্ব বজায় রাখতে কিন্তু এতে কোনো লাভ হয় না।
আরেক মুদি দোকানদার ছালাম সেক বলেন, কাজের সময় স্বাস্থ্যবিধি মানা ও মানানো অনেক কঠিন। নিজে সচেতন না হলে এটা সম্ভব না। গত দুই দিন অনেক বেচা কেনা হয়েছে। এতে পেঁয়াজ, আদা, আলু ও চালের দাম বেড়ে গেছে।
বাজারে আসা নাজমুল হাসান বলেন, আমি প্রতিদিন সকলে কাঁচাবাজার করি। আজকেও বাজারে ভিড় । গত দুইদিনেও মানুষ প্রচুর কেনাকাটা করেছে। ফলে জিনিস পত্রের দাম বেড়ে গেছে৷
বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ১৮ থেকে ২০ টাকার আলু প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ২২ থেকে ২৫ টাকা দরে। ৩৫ টাকার পেঁয়াজ ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, ৬০ টাকা কেজির আদা বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকা দরে। একই সঙ্গে দাম বেড়েছে সব ধরনের চালের। প্রতিকেজি চালে ২ থেকে ৩ টাকা বেশি নিচ্ছেন। ডিম গত সপ্তাহে প্রতি হালি ২৮-৩০ টাকায় বিক্রি হলেও এখন বিক্রি হচ্ছে ৩২-৩৫ টাকা হালি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102