০৩:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাংশার বাংলাটে পূর্ব বিরোধের জের ধরে হামলা, আহত-২ বাড়ী-ঘর ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাংশা, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের দড়ি বাংলাট গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই ব্যক্তিকে লোহার রড, হাতুড়ি, চাইনিজ করাল দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে। একই সাথে অন্তত ৪টা বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। আহতরা হলেন বাংলাট গ্রামের নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদার। আহতদের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাতেই ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের দড়ি বাংলাট গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে দলীয়, সামাজিক বিরোধ ও জমি সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছিল। সামাজিকভাবে উত্তেজনা চললে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ বেধে যায়। নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদারের সাথে একই গ্রামের শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল্লার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। বুধবার (৫ জুন) দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাজাইল বাজার থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদার। পথিমধ্যে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা শহিদুল ইসলাম অরফে সাইদুল্লাহর নেতৃত্বে হাকিম মন্ডল, আনিছুল্লাহ মন্ডল, হামিদুল মন্ডল, রাসেল মন্ডল, সাত্তার মন্ডল, জসিম মন্ডল, আক্তার মন্ডল, আবু তালেব মন্ডল, আজাদ মন্ডল, সাইদুল ইসলাম, দিলবার মন্ডল, কফিল উদ্দিন, ইসলাম মন্ডলসহ অনেকে তাদের ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়।

এসময় দুর্বৃত্তরা আজিজ শিকদার ও নায়েব আলী শিকদারকে লোহার রড, হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। পরে দুর্বত্তরা বাংলাট গ্রামের চার-পাঁচ বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা ঘরের টিনের বেড়া ভাঙচুর শেষে লুটপাট করে বলে আজিজ শিকদারের পরিবারের অভিযোগ। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল্লাহসহ তার লোকজন নায়েব শিকদার, আজিজ শিকদারকে ধরে মারধর করে।পরে উভয় পরিবারের মধ্যে চরম উত্তেজনা ছড়িযে পড়ে। এসময় বাড়ি-ঘর ভাঙচুর হয়নি তবে কয়েকটি ঘরের টিনের বেড়া কুপিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করে। খবর পেয়ে রতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। আহত নায়েব আলী ও আজিজ শিকার ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

গোয়ালন্দে ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, কমিটি ঘোষণা হবে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে

পাংশার বাংলাটে পূর্ব বিরোধের জের ধরে হামলা, আহত-২ বাড়ী-ঘর ভাংচুর

পোস্ট হয়েছেঃ ০৮:৫৩:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাংশা, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের দড়ি বাংলাট গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই ব্যক্তিকে লোহার রড, হাতুড়ি, চাইনিজ করাল দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে। একই সাথে অন্তত ৪টা বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। আহতরা হলেন বাংলাট গ্রামের নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদার। আহতদের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাতেই ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের দড়ি বাংলাট গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে দলীয়, সামাজিক বিরোধ ও জমি সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছিল। সামাজিকভাবে উত্তেজনা চললে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ বেধে যায়। নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদারের সাথে একই গ্রামের শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল্লার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। বুধবার (৫ জুন) দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাজাইল বাজার থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন নায়েব শিকদার ও আজিজ শিকদার। পথিমধ্যে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা শহিদুল ইসলাম অরফে সাইদুল্লাহর নেতৃত্বে হাকিম মন্ডল, আনিছুল্লাহ মন্ডল, হামিদুল মন্ডল, রাসেল মন্ডল, সাত্তার মন্ডল, জসিম মন্ডল, আক্তার মন্ডল, আবু তালেব মন্ডল, আজাদ মন্ডল, সাইদুল ইসলাম, দিলবার মন্ডল, কফিল উদ্দিন, ইসলাম মন্ডলসহ অনেকে তাদের ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়।

এসময় দুর্বৃত্তরা আজিজ শিকদার ও নায়েব আলী শিকদারকে লোহার রড, হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। পরে দুর্বত্তরা বাংলাট গ্রামের চার-পাঁচ বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা ঘরের টিনের বেড়া ভাঙচুর শেষে লুটপাট করে বলে আজিজ শিকদারের পরিবারের অভিযোগ। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল্লাহসহ তার লোকজন নায়েব শিকদার, আজিজ শিকদারকে ধরে মারধর করে।পরে উভয় পরিবারের মধ্যে চরম উত্তেজনা ছড়িযে পড়ে। এসময় বাড়ি-ঘর ভাঙচুর হয়নি তবে কয়েকটি ঘরের টিনের বেড়া কুপিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করে। খবর পেয়ে রতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। আহত নায়েব আলী ও আজিজ শিকার ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।