০৯:২৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রদল সম্পাদক গুরুতর আহত, আইসিইউতে ভর্তি

শামীম শেখ, গোয়ালন্দঃ ছাত্রদলের অভ্যন্তরীন দ্বন্দ্বের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর জখম হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন গোয়ালন্দ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক সবুজ সরদার (২৫)। শুক্রবার (২৪ মে) বিকেল ৫টার দিকে রাজবাড়ী জেলা শহর থেকে ছাত্রদলের সম্মেলন শেষে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।

গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে বাস থেকে নামিয়ে তার ওপর বর্বরোচিত হামলা করে ছাত্রদলের একাংশের নেতারা। হামলার পর স্থানীয়রা সবুজকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নেয়ার পরে অবস্থার আরো অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে শনিবার ভোর রাত ৪টার দিকে তার মাথায় অস্ত্রপচারের পর আইসিইউতে স্হানান্তর করা হয়।

সবুজ সরদারের বড় ভাই সেলিম সরদার অভিযোগ করে বলেন, সবুজের অবস্হা খুবই জটিল। আমি আমার ভাইয়ের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাই। সেইসাথে তার উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। এ বিষয়ে সেলিম সরদার অভিযোগ করে বলেন, ‘রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের সম্মেলন শেষে বাসযোগে বাড়ি ফিরছিল তার ছোট ভাই সবুজ। গোয়ালন্দ হাসপাতালের সামনে বাসটি পৌঁছালে জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক, স্হানীয় যুবক নুর ইসলামের নেতৃত্বে একদল যুবক বাসটিতে উঠে ভেতর থেকে সবুজকে নামিয়ে নিচে নিয়ে আসে। এ সময় তারা লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে সবুজকে বেদম মারধর করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে। রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আরিফুল ইসলাম রোমান বলেন, চেয়ারে বসা নিয়ে গোয়ালন্দের ছাত্রদলের এক নেতার সাথে অপর একটি পক্ষের হাতাহাতি হয়। পরবর্তীতে আমরা সব মিটমাট করে দেই। পরে আবার শুনেছি গোয়ালন্দ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সবুজ সরদারের ওপর গোয়ালন্দে দুর্বত্তরা হামলা চালিয়ে মারধর করেছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলনে চেয়ারে বসা ও স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে হাতাহাতিসহ চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও হট্টগোলের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রানবন্ধু চন্দ্র বিশ্বাস জানান, হামলার ঘটনায় শনিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্হা নেয়া হবে।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

গোয়ালন্দে ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, কমিটি ঘোষণা হবে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে

গোয়ালন্দে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রদল সম্পাদক গুরুতর আহত, আইসিইউতে ভর্তি

পোস্ট হয়েছেঃ ০৭:৫৩:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

শামীম শেখ, গোয়ালন্দঃ ছাত্রদলের অভ্যন্তরীন দ্বন্দ্বের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর জখম হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন গোয়ালন্দ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক সবুজ সরদার (২৫)। শুক্রবার (২৪ মে) বিকেল ৫টার দিকে রাজবাড়ী জেলা শহর থেকে ছাত্রদলের সম্মেলন শেষে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।

গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে বাস থেকে নামিয়ে তার ওপর বর্বরোচিত হামলা করে ছাত্রদলের একাংশের নেতারা। হামলার পর স্থানীয়রা সবুজকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নেয়ার পরে অবস্থার আরো অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে শনিবার ভোর রাত ৪টার দিকে তার মাথায় অস্ত্রপচারের পর আইসিইউতে স্হানান্তর করা হয়।

সবুজ সরদারের বড় ভাই সেলিম সরদার অভিযোগ করে বলেন, সবুজের অবস্হা খুবই জটিল। আমি আমার ভাইয়ের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাই। সেইসাথে তার উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। এ বিষয়ে সেলিম সরদার অভিযোগ করে বলেন, ‘রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের সম্মেলন শেষে বাসযোগে বাড়ি ফিরছিল তার ছোট ভাই সবুজ। গোয়ালন্দ হাসপাতালের সামনে বাসটি পৌঁছালে জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক, স্হানীয় যুবক নুর ইসলামের নেতৃত্বে একদল যুবক বাসটিতে উঠে ভেতর থেকে সবুজকে নামিয়ে নিচে নিয়ে আসে। এ সময় তারা লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে সবুজকে বেদম মারধর করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে। রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আরিফুল ইসলাম রোমান বলেন, চেয়ারে বসা নিয়ে গোয়ালন্দের ছাত্রদলের এক নেতার সাথে অপর একটি পক্ষের হাতাহাতি হয়। পরবর্তীতে আমরা সব মিটমাট করে দেই। পরে আবার শুনেছি গোয়ালন্দ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সবুজ সরদারের ওপর গোয়ালন্দে দুর্বত্তরা হামলা চালিয়ে মারধর করেছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলনে চেয়ারে বসা ও স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে হাতাহাতিসহ চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও হট্টগোলের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রানবন্ধু চন্দ্র বিশ্বাস জানান, হামলার ঘটনায় শনিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্হা নেয়া হবে।