May 20, 2022, 11:09 pm
শিরোনামঃ
রাজবাড়ীতে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তর সরবরাহকারী চক্রের ১৩ সদস্য আটক গোয়ালন্দে পদ্মার ভাঙনঃ থেমে আছে ঘাট আধুনিকায়ন কাজ রাজবাড়ীতে টিকা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ কর্মশালা কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা

নিখোঁজের দুই দিন পর মাটিতে পুতে রাখা ট্রাক চালকের লাশ

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, মার্চ ২০, ২০২১
  • 48 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ শনিবার বিকেলে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পৌরসভার বদিউজ্জামান বেপারী পাড়ার জনৈক মজিবর রহমান ওরফে মজি মাষ্টারের পুকুর থেকে নরম মাটিতে পুতে রাখা এক তরুণের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম রনি পাঠান (২৩)। সে ট্রাক চালক ও গোয়ালন্দ পৌরসভার আদর্শ গ্রামের আব্দুল মতিন পাঠানের ছেলে।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ জানায়, শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে স্থানীয় লোকজন মজিবর রহমানের মাষ্টারের পুকুর পাড়ে ছাগল আনতে গিয়ে গন্ধ পায়। বিষয়টি স্থানীয় কয়েকজন জানতে পারলে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান। পুলিশ খবর পেয়ে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে লাশ উদ্ধার করে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে সে নিখোঁজ ছিল।

নিহত রনি পাঠানের মা মরিয়ম বেগম জানান, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর ট্রাক চালানো শেষে রনি বাড়ি ফিরে কিছু খাওয়া দাওয়া করে। পরে পাশের ইবাদুল্লা মিস্ত্রি পাড়ার জুয়েল (২১), ময়ছের শেখের পাড়ার জীবন (২২) ও শাখের ফকির পাড়ার সুজন (২২) তাকে ডাক দিয়ে নিয়ে যায়। এরপর থেকে রনি আর বাড়ি ফিরে আসেনি। ওরাই আমার পোলাকে খুন করেছে। আমি ওদের কঠিন শাস্তি চাই। ওর কাছে অনেক টাকা ছিল, তাও নিয়ে গেছে। আমার এমন সর্বনাশ ওরা কেন করলে রে?

শনিবার বিকেলে ঘটনাস্থলের পাশে রক্তের দাগ দেখা যায়। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় লাশ উত্তোলনের পর দেখা যায়, রনির গলা কাটা। ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করা শেষে পুকুরের পাড়ে কাঁদা মাটিতে পুতে রাখে। লাশের পাশেই নিহত রনির মা, ভাই-বোন সহ পরিবারের লোকজন কান্নায় আহাজারি করতে ছিল। বার বার মুর্ছা যাচ্ছিল আর বলছিল গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে জুয়েল, জীবন ও সুজন রনিকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয়। ওরা প্রত্যেকে নেশা করে। ঘটনাস্থলের পাশে ডেন্ডি আঠা জাতীয় নেশার পলিথিন ও কৌটা পড়ে থাকতে দেখা যায়। স্থানীয়দের ধারণা, নেশা করা অবস্থায় রনিকে হত্যার পর লাশ পুতে ফেলে।
রনির বড় ভাই রানা পাঠান জানান, ঘটনার দিন রনির কাছে ১২ হাজার টাকা ছিল। টাকাগুলো বাড়ি না রেখে কাছে রেখেই সে উল্লেখিত তিনজনের সাথে বাড়ি থেকে বের হয়। ধারণা করা যাচ্ছে নেশা করা অবস্থায় ওই টাকাগুলো কেড়ে রেখে দিয়েই রনিকে জবাই করে হত্যার পর লাশ পুতে রাখে। আমরা খুনিদের গ্রেপ্তারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, পুলিশ কাঁদা মাটিতে পুতে রাখা লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী পাঠানোর প্রস্ততি নিচ্ছে। প্রাথমিকভাবে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে। প্রকৃত অপরাধী কে তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে। অপরাধীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ মাঠে কাজ করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102