December 7, 2021, 9:12 pm
Title :
গোয়ালন্দে চার ভিক্ষুককে পুনর্বাসনে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান গোয়ালন্দে পালানোর সময় জনতার হাতে মোটরসাইকেলসহ চোর আটক পাঁচুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাতিজাকে অপহরন, ৯৯৯-এ নম্বরে ফোন করে উদ্ধার ঘূূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবঃ বৃষ্টিতে গোয়ালন্দে জনজীবন বিপর্যস্ত পাংশার দশ ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা রাজবাড়ীতে বোমাসহ নৌকা প্রার্থীর ছেলেসহ আটক দুই রাজবাড়ীতে মাদ্রাসাছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে তরুণ গ্রেপ্তার রাজবাড়ীতে ইলিশ সম্পদ উন্নয়নের লক্ষে অবহিতকরণ কর্মশালা গোয়ালন্দে দরিদ্র পরিবারের ঘরে জমজ তিন সন্তান “ঘর জুড়ে আলো, মন জুড়ে আধার” গোয়ালন্দে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নির্মল সভাপতি ও কোমল সম্পাদক

রাজবাড়ীতে নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও থেমে নেই ইলিশ শিকার

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, অক্টোবর ৮, ২০২১
  • 64 Time View
শেয়ার করুনঃ

শামিম রেজা, রাজবাড়ীঃ সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাজবাড়ীর পদ্মায় চলছে ইলিশ শিকার। জেলেরা বলছেন, সরকারি সহযোগিতা অপর্যাপ্ত হওয়ায় বাধ্য হয়েই মাছ আহরণে যেতে হচ্ছে তাদের। এদিকে, মাছ শিকার বন্ধে চলছে অভিযানও। জেল-জরিমানার পাশাপাশি পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে জাল।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া থেকে পাংশা উপজেলার সেনগ্রাম পর্যন্ত ৮৫ কিলোমিটার এলাকা পদ্মা নদীতে রয়েছে ইলিশ শিকারের নিষেধাজ্ঞা। মাঝে মধ্যেই জেলা প্রশাসন ও মৎসবিভাগ নদীতে টহল দিচ্ছে। সে সময় মাছ ধরা অবস্থায় জেলেদের অটক করে জেল জরিমানাও করা হচ্ছে। এরপরও জেলেরা থেমে নেই ইলিশ শিকারে। প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়েই নদী থেকে জেলেরা ইলিশ শিকার করছে।

সদর উপজেলার জেলে হালিম জানায়, কার্ড আছে কিন্তু ইলিশ ধরার নিষেধাজ্ঞার সময় কোন সহায়তা পাই না। এবছর এখনো কোন সহায়তা পাই নাই।

নিখিল হালদার জানায়, একটি নৌকা ও জাল কেনা বাবদ আশি থেকে একলক্ষ টাকা খরচ হয়। তারা নিষেধাজ্ঞার সময় নদীতে যেতে চায় না। কিন্তু জাল ও নৌকা কিনতে হয় ঋণ করে। মাছ ধরা বন্ধ থাকলেও কিস্তি বন্ধ থাকে না। যে কারনে বাধ‍্য হয়েই নদীতে নামতে হয়।

সুবল কুমার জানায়, পেট তো নিষেধাজ্ঞা মানে না। মাছ ধরা বন্ধের সময় শুনি চাল দেয় সেটা কারা পায় জানি না। আজ পযর্ন্ত কোন চাল পেলাম না।

জেলা মৎস বিভাগ সূত্রে জানা যায়, জেলায় নিবন্ধিত জেলে আছে চার হাজার সাত শত। এসব জেলেদের জন্য ৯৪ মেট্রিক টণ চাল বরাদ্দ এসেছে। যা ইতিমধ্যে প্রতিটা জেলেকে ২০ কেজি করে দেওয়া অব‍্যাহত রয়েছে।

জেলা মৎস কর্মকর্তা মোঃ মশিউর রহমান জানায়, নিষেধাজ্ঞার এই সময়ে কোনভাবেই মাছ শিকার করতে দেয়া হবে না। এই সময় জেলেদের নদী থেকে বিরত রাখতে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও মৎস বিভাগ কাজ করছে।

তিনি আরও জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় ইলিশ ধরার দায়ে সদরে ৮ ও পাংশায় ৪ জন জেলেকে আটক করা হয়। পড়ে তাদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জেল জরিমানা করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102