May 20, 2022, 10:19 pm
শিরোনামঃ
গোয়ালন্দে পদ্মার ভাঙনঃ থেমে আছে ঘাট আধুনিকায়ন কাজ রাজবাড়ীতে টিকা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ কর্মশালা কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের দাম বাড়লেও লোকসানে চাষিরা

বাজার, রিক্সায় স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই, বাড়ছে সংক্রমণের ঝুঁকি

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, জুলাই ৭, ২০২১
  • 128 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ করোনার সংক্রমণ ঝুঁঁকির দিক বিবেচনায় অধিক ঝুঁকিপূর্ণ রাজবাড়ী জেলা। আর জেলার গোয়ালন্দ উপজেলা আক্রান্তের দিক থেকেও আরো বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত। এমন পরিস্থিতির মধ্যে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে গোয়ালন্দ বাজার, অটোরিক্সা সর্বত্র স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই ছিলনা। এতে আরো সংক্রমণের ঝুঁকি দেখা যাচ্ছে।

বুধবার ছিল গোয়ালন্দের সাপ্তাহিক হাঁটের দিন। অন্যান্য দিনের তুলনায় বাজারে মানুষের সমাগম ছিল সবচেয়ে বেশি। সকাল থেকেই উপজেলার দূর-দূরান্ত থেকে মানুষজন বাজারে এসে ভিড় করছে। বাজারের সর্বত্রই মানুষে ঠাসাঠাসি। কোথাও স্বাভাবিক পরিবেশে দাঁড়ানোর জায়গা নাই। ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সাগুলোতে মানুষ বোঝাই ছিল। অনেকের মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। মুখে থাকলেও অধিকাংশ ব্যক্তির থুতনির নিচে ঝুলছিল।

বাজারে চুল কাটাতে এসে কলেজ শিক্ষক কামরুল ইসলাম। ভিড় দেখে বিষ্ময় প্রকাশ করে বলেন, খুব বেশি জরুরী না হলে বের হইনা। চুল অনেক বড় হয়েছিল, তাই বাধ্য হয়ে বাজারে আসলাম। কিন্তু বাজারে মানুষের উপস্থিতি দেখে নিজেই অবাক হয়ে গেলাম। চুল কাটা শেষ এখন দ্রুত ভালই ভালো বাড়ি ফিরতে পারলেই হলো।

ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক হয়ে দৌলতদিয়া ঘাটের দিকে যাচ্ছিল একাধারে কয়েকটি ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা। প্রতিটি রিক্সার ভিতর যাত্রীতে ঠাসাঠাসি। ছিলনা স্বাস্থ্যবিধির বালাই। চালকসহ যাত্রীদের অনেকের মুখে মাস্ক নেই। থাকলেও ঝুলছিল থুতনির নিচে।

রাজবাড়ীর নিমতলা থেকে যাত্রী বোঝাই করে দৌলতদিয়াগামী অটোরিক্সা চালক রুহুল আমিন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানতে অর্ধেক যাত্রী নেওয়ার কথা আছে। কিন্তু দুই পরিবারের বাচ্চাসহ ৮জন উঠেছেন। কাউকে নামাতে পারিনি। তাই গাড়ি ভরপুর লাগছে। অনেকের মুখে সঠিকভাবে মাস্ক না থাকার কারণ সর্ম্পকে বলেন, এটা তো তাদের ব্যাপার। কেউ যদি না মানে ক্ষতি হলে তো তারই হবে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রফিকুল ইসলাম বলেন, পৌনে দুই বছর সাধারণ মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করলাম। কিন্তু এখনো মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরি হয়নি। প্রতিদিন উপজেলার সর্বত্র ঘুরে সচেতনতার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি। মাঝেমধ্যে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল-জরিমানাও করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102