০৯:১৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে নাট্য উৎসবে সাংসদ গাইলেন গান, মঞ্চস্থ্য হলো নাটক ‘চরিত্রহীন’

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসব শুরু হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত ১০টায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী উদ্বোধন শেষে নিজে গান পরিবেশন করে সবাইকে মুগ্ধ করলেন। গোয়ালন্দ পৌর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ফকীর মহিউদ্দিন আনছার ক্লাব চত্বরে উদ্বোধনী পর্ব শেষে মঞ্চস্থ্য হয় সামাজিক নাটক ‘চরিত্র হীন’।

“সুস্থ্য সংস্কৃতির চর্চাই হোক দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গঠনের হাতিয়ার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ এর উদ্যোগে প্রতি বছরের ন্যায় এবছর তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবে তিনটি সামাজিক নাটক মঞ্চস্থ্য হচ্ছে। এর আগে করোনার কারনে দুই বছর এই নাট্য উৎসব বন্ধ ছিল।

গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের শেখ এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংসদের স্ত্রী রেবেকা সুলতানা, পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার, গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মো. ছিদ্দিক মিয়া, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নির্মল কুমার চক্রবর্তী, উজানচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা, জেলা পরিষদ সদস্য মো. ইউনুস মোল্লা, নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কোমল কুমার সাহা প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অপূর্ব সাহা দ্বিজেন।

উদ্বোধন শেষে সংসদ সদস্য, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকদের অনুরোধে “ময়ুর পঙ্খি রাতেরও নীড়ে, আকাশের তারাতে.. ওই মিছিলে। তুমি.. আমি আর চলো চলে যায় শুধু দুজনে মিলে” এই গান গেয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেন। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে অনুষ্ঠান।

শেষে মঞ্চে মঞ্চস্থ্য হয় শ্রী রঞ্জন দেবনাথ রচিত সামাজিক নাটক ‘চরিত্রহীন’। ইসলাম মোল্লার নির্দেশনা ও পরিচালনায় অভিনয় করেছেন রফিকুল ইসলাম, এরশাদ হোসেন সবুজ, সাধন কুমার সাহা, দিলিপ কুমার সাহা, আজিজ মন্ডল, রফিকুল ইসলাম জুনা, রঞ্জন কুমার রাহা, প্রদীপ কুমার বিশ্বাস, অপূর্ব সাহা দ্বিজেন, আবু সাইদ কুটি মনি, জীবন চক্রবর্তী, বাদল বিশ্বাস, মুরাদ আল রেজা, রফিকুল ইসলাম সালু, আব্দুল খালেক খান, সাইফুর রহমান পারভেজ, কাজী মনির, শফিক মন্ডল, সুজিদ কুমার দাস, অর্ক সাহা (শিশু শিল্পী) ও ইসলাম মোল্লা। নারী চরিত্রে তমা রাণী, লক্ষ্মী রানী, সাবিত্রী, গায়িকা ও নায়িকা বণশ্রী এবং স্মারকে হরেন্দ্র নাথ মন্ডল।

পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম বলেন, করোনার কারনে দুই বছর এ ধরনের নাট্য উৎসব বন্ধ ছিল। আগামীকে বড় ধরনের কোন সমস্যা সৃষ্টি না হলে ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের উৎসবের আয়োজন করা হবে। এ জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

সাংসদ কাজী কেরামত আলী বলেন, “আমরা যেমন নিজের শরীর, মনকে ভালো বাসি। এসব ভালো রাখতে হলে, ভালো বাসতে হলে নাটক, গানকে ভালোবাসতে হবে। সুস্থ্য ধারার সাংস্কৃতিক চর্চা বেশি বেশি করে করতে হবে। সামাজিক নানা অপরাধ থেকে মুক্ত থাকতে হলে সবাইকে এ ধরনের নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসবে সামিল হতে হবে”। এত সুন্দর আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

গোয়ালন্দে ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, কমিটি ঘোষণা হবে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে

গোয়ালন্দে নাট্য উৎসবে সাংসদ গাইলেন গান, মঞ্চস্থ্য হলো নাটক ‘চরিত্রহীন’

পোস্ট হয়েছেঃ ০৬:০৬:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মার্চ ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসব শুরু হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত ১০টায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী উদ্বোধন শেষে নিজে গান পরিবেশন করে সবাইকে মুগ্ধ করলেন। গোয়ালন্দ পৌর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ফকীর মহিউদ্দিন আনছার ক্লাব চত্বরে উদ্বোধনী পর্ব শেষে মঞ্চস্থ্য হয় সামাজিক নাটক ‘চরিত্র হীন’।

“সুস্থ্য সংস্কৃতির চর্চাই হোক দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গঠনের হাতিয়ার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ এর উদ্যোগে প্রতি বছরের ন্যায় এবছর তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবে তিনটি সামাজিক নাটক মঞ্চস্থ্য হচ্ছে। এর আগে করোনার কারনে দুই বছর এই নাট্য উৎসব বন্ধ ছিল।

গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের শেখ এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংসদের স্ত্রী রেবেকা সুলতানা, পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার, গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মো. ছিদ্দিক মিয়া, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নির্মল কুমার চক্রবর্তী, উজানচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা, জেলা পরিষদ সদস্য মো. ইউনুস মোল্লা, নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কোমল কুমার সাহা প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অপূর্ব সাহা দ্বিজেন।

উদ্বোধন শেষে সংসদ সদস্য, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকদের অনুরোধে “ময়ুর পঙ্খি রাতেরও নীড়ে, আকাশের তারাতে.. ওই মিছিলে। তুমি.. আমি আর চলো চলে যায় শুধু দুজনে মিলে” এই গান গেয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেন। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে অনুষ্ঠান।

শেষে মঞ্চে মঞ্চস্থ্য হয় শ্রী রঞ্জন দেবনাথ রচিত সামাজিক নাটক ‘চরিত্রহীন’। ইসলাম মোল্লার নির্দেশনা ও পরিচালনায় অভিনয় করেছেন রফিকুল ইসলাম, এরশাদ হোসেন সবুজ, সাধন কুমার সাহা, দিলিপ কুমার সাহা, আজিজ মন্ডল, রফিকুল ইসলাম জুনা, রঞ্জন কুমার রাহা, প্রদীপ কুমার বিশ্বাস, অপূর্ব সাহা দ্বিজেন, আবু সাইদ কুটি মনি, জীবন চক্রবর্তী, বাদল বিশ্বাস, মুরাদ আল রেজা, রফিকুল ইসলাম সালু, আব্দুল খালেক খান, সাইফুর রহমান পারভেজ, কাজী মনির, শফিক মন্ডল, সুজিদ কুমার দাস, অর্ক সাহা (শিশু শিল্পী) ও ইসলাম মোল্লা। নারী চরিত্রে তমা রাণী, লক্ষ্মী রানী, সাবিত্রী, গায়িকা ও নায়িকা বণশ্রী এবং স্মারকে হরেন্দ্র নাথ মন্ডল।

পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম বলেন, করোনার কারনে দুই বছর এ ধরনের নাট্য উৎসব বন্ধ ছিল। আগামীকে বড় ধরনের কোন সমস্যা সৃষ্টি না হলে ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের উৎসবের আয়োজন করা হবে। এ জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

সাংসদ কাজী কেরামত আলী বলেন, “আমরা যেমন নিজের শরীর, মনকে ভালো বাসি। এসব ভালো রাখতে হলে, ভালো বাসতে হলে নাটক, গানকে ভালোবাসতে হবে। সুস্থ্য ধারার সাংস্কৃতিক চর্চা বেশি বেশি করে করতে হবে। সামাজিক নানা অপরাধ থেকে মুক্ত থাকতে হলে সবাইকে এ ধরনের নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসবে সামিল হতে হবে”। এত সুন্দর আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।