০৫:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে র‌্যাবের হাতে দুই সহযোগীসহ সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার, ইয়াবা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেক, রাজবাড়ীঃ র‌্যাব-১০, সিপিসি-৩ ফরিদপুর ক্যাম্পের একটি দল অভিযান চালিয়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলার আহলাদীপুর বাজার মাজার গেট এর সামনে থেকে মাদকদ্রব্য আইনে ১৫ বছরের কারাদ-প্রাপ্ত ৭ বছর ধরে পলাতক আসামীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এসময় তাদের কাছ থেকে র‌্যাব সদস্যরা ১ হাজার ৮৫০পিস ইয়াবাবড়ি উদ্ধার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার জয়নাবাদ মন্ডল পাড়ার মৃত নুরুল ইসলাম ওরফে টিয়ালার ছেলে নাজমুল ইসলাম ওরফে কাজল (৩৯), একই উপজেলার ছেঁউরিয়া ম-ল পাড়া গ্রামের মোহাম্মদ মুরাদ এর ছেলে তাওহিদুল ইসলাম রাফিদ (২১) ও একই এলাকার আব্দুর ছাত্তার এর মেয়ে মোছা. বর্ষা খাতুন (১৯)। তাঁদের কাছ থেকে র‌্যাব সদস্যরা ১ হাজার ৮৫০ পিস ইয়াবাবড়ি, একটি মোবাইল ফোন ও নগদ এক হাজার ৪০টাকা উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১০ ফরিদপুর ক্যাম্প থেকে আজ শুক্রবার দুপুরে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা জানতে পারে রাজবাড়ীর পাংশা থানায় ২০১৭ সালের ২৪ আগষ্ট দায়েরকৃত ১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ১৫ বছরের সশ্রম কারাদ- এবং ১০ হাজার টাকা অর্থদ-প্রাপ্ত ওয়ারেন্টভুক্ত দীর্ঘ ৭ বছর ধরে পলাতক আসামী, নাজমুল ইসলাম কাজলকে বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই সময় তার অপর দুই সহযোগী তাওহিদুল ইসলাম রাফিদ ও বর্ষা খাতুনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১০, সিপিসি-৩ ফরিদপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার কে এম শাইখ আকতার জানান, নাজমুল ইসলাম কাজল আন্তঃজেলা মাদক স¤্রাট এবং মাদককারবারি। অপর আসামীরাও চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী। নাজমুলসহ তার সহযোগীরা দেশের সীমান্তবর্তী বিভিন্ন জেলার বর্ডার এলাকা থেকে চোরাই পথে মাদকদ্রব্য এনে ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, রাজবাড়ী ও আশপাশের জেলায় বিক্রি করতো। তার বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলা সদর, রাজবাড়ীর পাংশা ও গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। একটি মামলায় ১৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হিসেবে ওয়ারেন্ট রয়েছে। আরো একাধিক মামলার ওয়ারেন্ট রয়েছে।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সোহেল ও সম্পাদক কামরুল পুনরায় নির্বাচিত

রাজবাড়ীতে র‌্যাবের হাতে দুই সহযোগীসহ সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার, ইয়াবা উদ্ধার

পোস্ট হয়েছেঃ ১০:৩৪:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুন ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেক, রাজবাড়ীঃ র‌্যাব-১০, সিপিসি-৩ ফরিদপুর ক্যাম্পের একটি দল অভিযান চালিয়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলার আহলাদীপুর বাজার মাজার গেট এর সামনে থেকে মাদকদ্রব্য আইনে ১৫ বছরের কারাদ-প্রাপ্ত ৭ বছর ধরে পলাতক আসামীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এসময় তাদের কাছ থেকে র‌্যাব সদস্যরা ১ হাজার ৮৫০পিস ইয়াবাবড়ি উদ্ধার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার জয়নাবাদ মন্ডল পাড়ার মৃত নুরুল ইসলাম ওরফে টিয়ালার ছেলে নাজমুল ইসলাম ওরফে কাজল (৩৯), একই উপজেলার ছেঁউরিয়া ম-ল পাড়া গ্রামের মোহাম্মদ মুরাদ এর ছেলে তাওহিদুল ইসলাম রাফিদ (২১) ও একই এলাকার আব্দুর ছাত্তার এর মেয়ে মোছা. বর্ষা খাতুন (১৯)। তাঁদের কাছ থেকে র‌্যাব সদস্যরা ১ হাজার ৮৫০ পিস ইয়াবাবড়ি, একটি মোবাইল ফোন ও নগদ এক হাজার ৪০টাকা উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১০ ফরিদপুর ক্যাম্প থেকে আজ শুক্রবার দুপুরে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা জানতে পারে রাজবাড়ীর পাংশা থানায় ২০১৭ সালের ২৪ আগষ্ট দায়েরকৃত ১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ১৫ বছরের সশ্রম কারাদ- এবং ১০ হাজার টাকা অর্থদ-প্রাপ্ত ওয়ারেন্টভুক্ত দীর্ঘ ৭ বছর ধরে পলাতক আসামী, নাজমুল ইসলাম কাজলকে বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই সময় তার অপর দুই সহযোগী তাওহিদুল ইসলাম রাফিদ ও বর্ষা খাতুনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১০, সিপিসি-৩ ফরিদপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার কে এম শাইখ আকতার জানান, নাজমুল ইসলাম কাজল আন্তঃজেলা মাদক স¤্রাট এবং মাদককারবারি। অপর আসামীরাও চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী। নাজমুলসহ তার সহযোগীরা দেশের সীমান্তবর্তী বিভিন্ন জেলার বর্ডার এলাকা থেকে চোরাই পথে মাদকদ্রব্য এনে ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, রাজবাড়ী ও আশপাশের জেলায় বিক্রি করতো। তার বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলা সদর, রাজবাড়ীর পাংশা ও গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। একটি মামলায় ১৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হিসেবে ওয়ারেন্ট রয়েছে। আরো একাধিক মামলার ওয়ারেন্ট রয়েছে।