August 5, 2021, 5:10 am
Title :
হিন্দু বাড়িতে হামলা, মারধর, পুলিশের হস্তক্ষেপে পালিয়ে থাকা পরিবার বাড়িতে প্রবাসী ফোরামের জন্মদিনে ব্লাড ডোনার ক্লাবকে অক্সিজেন সিলিন্ডার ও সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান ভাঙন কবলিত মানুষের মাঝে ইয়ামাহা রাইডার্স এর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সকালে ব্যক্তিগত গাড়ির লম্বা লাইন, দুপুরে ঘাটে মানুষের ভিড় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে লঞ্চে সকাল থেকেই মানুষের ভিড় গৃহকর্মীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে চিত্রনায়িকা একা কারাগারে কারখানা খোলায় দৌলতদিয়া ঘাটে মানুষের ঢল, যে যেভাবে পারছে সেভাবে ছুটছে পদ্মার ১৯ কেজির পাঙ্গাশ, বিক্রি হলো ২৬ হাজার ৬০০ টাকায় গোয়ালন্দে জুয়া খেলা অবস্থায় টাকাসহ ৬ জুয়াড়ি আটক, পলাতক দুই শ্রমিকদের যাতায়াতের সুবিদার্থে রাত থেকে চলবে লঞ্চ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে কুয়াশায় কাজে আসছে না কয়েক কোটি টাকার ফগলাইট

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, জানুয়ারি ২৯, ২০২১
  • 26 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে গত দুই সপ্তাহ ধরে প্রায় রাতে কুয়াশায় ৮ থেকে ৯ ঘন্টা ফেরি বন্ধ থাকছে। কুয়াশার ভিতর চলাচলের জন্য কযেক বছর আগে ফেরিতে বসানো হয় কয়েক কোটি টাকার ফগলাইট। লাইট স্থাপনের কয়েকদিনের মধ্যে অধিকাংশ নষ্ট হয়ে যায়। এক-দুটি সচল থাকলেও ভারি কুয়াশায় তা কাজে আসছে না।

এদিকে ঘন কুয়াশার মধ্যে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ১০টি ফেরিতে কয়েক কোটি টাকা খরচ করে বিআইডব্লিউটিসি ফেরিতে বসায় ‘ফগলাইট’। তবে লাইট বসানোর কয়েকদিনের মধ্যে সব বিকল হয়ে যায়।

রো রো ফেরি ভাষা শহীদ বরকত এর ইনচার্জ মাষ্টার মুনসুর আহম্মেদ বলেন, চার বছর আগে এটিসহ ১০টি ফেরিতে কুয়াশার ভিতর ফেরি চালাতে ফগলাইট স্থাপন করা হয়। কয়েকদিন পর অধিকাংশ লাইট নষ্ট হয়ে যায়। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবগত করলেও এখন পর্যন্ত সমাধান হয়নি। এছাড়া এই লাইট কুয়াশার ভিতর চলার উপযোগী নয়। সাধারণ হালকা কুয়াশার ভিতর চলাচল করা যায়। এর চেয়ে সার্চ লাইট দিয়ে অনেক কাজ করা যায়। উন্নত প্রযুক্তির লাইট বসানো না হলে কোন কাজে আসবেনা।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয় জানায়, ২০১৬ সালের জুন মাসে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় দরপত্র প্রদানের মাধ্যমে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া এবং শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে চলাচলরত ১০টি ফেরিতে কয়েক কোটি টাকা ব্যায়ে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ফগলাইট স্থাপন করে। যুক্তরাষ্ট্রের তৈরী একেকটি ৭ হাজার কিলোওয়াটের লাইট কিনতে ৫০ লাখ টাকার ওপর ব্যায় হয়। অথচ কয়েকদিন পর অধিকাংশ লাইট নষ্ট হয়ে পড়ে আছে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে রাজধানীর যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়াদিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার গাড়ি, অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ পারাপার হয়। শীত মৌসুমে কুয়াশা পড়লে উন্নত প্রযুক্তির ফগলাইটের ব্যবস্থা না থাকায় অধিকাংশ রাতে গড়ে ৮ থেকে ৯ ঘন্টা পড়ে ফেরি বন্ধ থাকছে। এতে ফেরি ও লঞ্চ পারাপার বন্ধ থাকায় উভয় ঘাটে ঘন্টার পর ঘন্টা আটকা থাকছে শত শত যানবাহন। দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন হাজার হাজার যাত্রী সাধারণ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, চলতি মাসের ১৬ জানুয়ারী রাত থেকে কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত বাড়ার সাথে কুয়াশার মাত্রা বাড়তে থাকলে ওইদিন মধ্যরাত থেকে পরদিন সকাল পর্যন্ত প্রায় ৭ ঘন্টা ফেরি বন্ধ ছিল। পরদিন ১৭ জানুয়ারী মধ্যরাত থেকে ১৮ জানুয়ারী সকাল পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ১০ ঘন্টা। এভাবে গড়ে প্রতি রাতে ৮ থেকে ৯ ঘন্টা করে ফেরি বন্ধ থাকছে। শীত কুয়াশার মধ্যে ফেরি আটকে বিভিন্ন গাড়ির চালকসহ হাজার হাজার যাত্রী ভোগান্তির শিকার হন। এই নিয়ে এক সপ্তাহে ৬৭ ঘন্টার বেশি মতো ফেরি বন্ধ ছিল।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (মেরিন) আব্দুস সাত্তার সংবাদের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ফগলাইট নিয়ে মন্ত্রণালয়ে অনেক লেখালেখি হয়েছে। ১০টির মধ্যে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে চলছে ৭টি ও বাকি ৩টি ফেরি চলছে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে। এক-দুটি লাইট ভালো থাকলেও তেমন কাজ হচ্ছেনা। তবে ফগলাইটের সাথে উন্নত রাডার স্থাপন, ইকোসাউন্ড সিষ্টেম এবং জিপিএস বসানো থাকলে হয়তো চলাচল করতে পারতো।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102