September 18, 2021, 7:20 am

দৌলতদিয়ায় ফেরির জন্য অপেক্ষমান মাছের গাড়ি থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গ্রেপ্তার ১৭

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, নভেম্বর ১৮, ২০২০
  • 42 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় ফেরির জন্য অপেক্ষমান সিলেটগামী একটি মাছের ট্রাকে চাঁদাবাজির অভিযোগে জনতার হাতে আটক ৭ জনকে পুলিশে দিয়েছে। পরে পুলিশ সুপারের নির্দেশে বুধবার সকালে ও মঙ্গলবার দিবাগত রাতভর অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে আরো ১০ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের চালকের দায়েরকৃত চাঁদাবাজির মামলায় বুধবার রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মাছের ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট ২৪-০০৩১) চালক শরিফুল ইসলাম জানান, যশোরের মনিরামপুর থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাছ বোঝাই করে সিলেটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। রাত সোয়া এগারটার দিকে তিনি ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া ক্যানাল ঘাট এলাকায় পৌছে জ্যামে আটকা পড়েন। এসময় একদল যুবক গাড়ির গতিরোধ করে মাছের গাড়ি এই রুট দিয়ে চলাচল করতে হলে তাদেরকে নিয়মিত মাসিক ২০ হাজার টাকা করে চাঁদা প্রদান করতে হবে বলে চালকের কাছে দাবী করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চালককে মারধর এবং ট্রাকের লুকিং গ্লাস ভেঙ্গে ফেলে। বাধ্য হয়ে রোড খরচ হিসেবে চালকের কাছে থাকা নগদ ৪ হাজার টাকা তাদের হাতে তুলে দেন। বাকি আরো ১৬ হাজার টাকা দ্রুত পরিশোধের জন্য চালককে শাসাতে থাকে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হাতেনাতে ৭ জনকে আটক করে। বাকিরা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

আটককৃতরা হলো দৌলতদিয়া ওমর আলী মোল্লার পাড়ার রাজিব মন্ডল (২৩), মজিদ শেখের পাড়ার আজিজুল ইসলাম মৃধা (২৬), শামসু মাস্টার পাড়ার বাহাদুর খান (৩০), শাহাদৎ মেম্বার পাড়ার মো. হাফিজ (২৫), গোয়ালন্দ পৌরসভার ইবাদ আলী মিস্ত্রির পাড়ার রাসেল মন্ডল (২১), দৌলতদিয়া ফেলু মোল্লার পাড়ার মো. আলামিন (২৭) ও ফরিদপুর কোতয়ালী থানার দুর্গাপুর গ্রামের রাজু শেখ (৩১)। খবর পেয়ে গোয়ালন্দঘাট থানা পুলিশ স্থানীয় জনতার হাতে আটককৃত ৭জনকে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় চালক রাতেই থানায় ১৭জনকে চিহিৃত এবং অজ্ঞাত ৮জনকে আসামী করে চাঁদাবাজি মামলা (নং-২৫) দায়ের করেন।

এদিকে মামলা দায়েরের পর আটককৃতদের দেওয়া তথ্যমতে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ রাতভর এবং বুধবার সকালে দৌলতদিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরো ১০জনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো মামলার এজাহারভুক্ত গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউপির অম্বলপুর গ্রামের বিল্লাল হোসেন (২৪), দৌলতদিয়া ছিদ্দিক কাজী পাড়ার মোস্তফা শেখ (২৬), সোহরাব মন্ডল পাড়ার খোকন ফকির (২২), জলিল সরদার পাড়ার দেলোয়ার সরদার (২৪), ইদ্রিস মোল্লার পাড়ার জুয়েল শেখ (২১), ছাত্তার মেম্বার পাড়ার টিটু শেখ (২০) ও গোয়ালন্দ পৌরসভার দেওয়ান পাড়ার মিন্টু ফকির (২৫)। সন্ধিগ্ধ হিসেবে উত্তর দৌলতদিয়া হোসেন মন্ডল পাড়ার আতিয়ার রহমান (২৫), সাহাজদ্দিন বেপারী পাড়ার সাগর বিশ্বাস (২০) ও শাহাদৎ মেম্বার পাড়ার স্বপন বেপারী (১৯)।

গোয়ালন্দঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর রাজবাড়ীমেইলকে জানান, মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাতে মাছের গাড়িতে চাঁদাবাজির ঘটনা পুলিশ সুপার (এসপি) মিজানুর রহমান-পিপিএম এর কাছে অভিযোগ যায়। পুলিশ সুপারের নির্দেশে তাৎক্ষনিক রাতভর অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ১৭জনকে গ্রেপ্তার করে বুধবার দুপুরে রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে। এরা প্রত্যেকে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকার চিহিৃত দালাল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102