May 22, 2022, 4:20 am
শিরোনামঃ
রাজবাড়ীতে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় গ্রেপ্তার দম্পতির আদালতে স্বীকারোক্তি দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় ফেরিতে জুয়া খেলা অবস্থায় হাতেনাতে চার সদস্য গ্রেপ্তার রাজবাড়ীতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে ইউপি সদস্যকে মারপিটের অভিযোগ রাজবাড়ীতে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় ৩দি ন ব্যাপি প্রশিক্ষণ গোয়ালন্দে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্কাউট সামগ্রী বিতরণ রাজবাড়ীতে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তর সরবরাহকারী চক্রের ১৩ সদস্য আটক গোয়ালন্দে পদ্মার ভাঙনঃ থেমে আছে ঘাট আধুনিকায়ন কাজ রাজবাড়ীতে টিকা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ কর্মশালা কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার

গোয়ালন্দে আ.লীগ নেতা ও ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা দায়ের

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, নভেম্বর ২, ২০২০
  • 76 Time View
শেয়ার করুনঃ

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লা, পৌর আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম মণ্ডল, ইউপি সদস্য কাশেম আলী খাঁসহ ৬জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা হয়েছে। রোববার রাতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বানিবহ এলাকার ব্যবসায়ী মো. শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলাটি করেন। তবে মামলাটি মিথ্যা, রাজনৈতিক ও ষড়যন্ত্রমূলক বলে দাবী করছেন আসামীপক্ষ।

মামলার বাদী বলেন, কয়লা, পাথর ব্যবসায়ী হিসেবে তিনি (শফিকুল) প্রায় এক মাস আগে গোয়ালন্দের দৌলতদিয়ার ৬নম্বর ফেরিঘাট বিকল্প সড়কের পাশে জায়গা ইজারা নেন। জায়গাটি নিচু হওয়ায় উচুঁ করতে বালু দিয়ে ভরাটের উদ্যোগ নেন এবং চারপাশে বেড়া নির্মাণের প্রস্তুতি গ্রহণ করেন।

এসময় উপজেলা আ.লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী মোল্লা, নজরুল ইসলাম মন্ডল, স্থানীয় ১নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য কাশেম আলী খাঁসহ ৬জন কাজে বাধা দেন। কাজ করতে হলে তাদের এক লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। অস্বীকৃতি জানালে শাসিয়ে যাওয়ার সময় এক মাসের মধ্যে টাকা দিতে বলে। নতুবা এখানে ব্যবসা করতে দিবেনা বলে হুমকি দেন।

ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম বলেন, গত শনিবার (৩১ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে বলগেট করে বালু নামানো শুরু করলে নজরুল মণ্ডল, মোহাম্মদ মোল্লা, কাশেম খাসহ ৫-৬জন আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বাধা দেন। চাঁদা না দিয়ে ব্যবসা করতে দিবেনা বলে বলগেট চালককে মারধর করে। খবর পেয়ে শফিকুল ও তার মামা ছব্দুল ঘটনাস্থলে ছুটে গেলে তারা আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে চাঁদার টাকা দিতে বলে। এক পর্যায়ে শফিকুলের প্যান্টের পকেটে থাকা ১০ হাজার টাকা নিয়ে বাকি ৯০ হাজার টাকা ৭দিনের মধ্যে দিতে বলে এবং শ্রমিকদেরও মারপিট করে। পরে স্থানীয় লোকজন আসলে তারা চাঁদার টাকা না দিলে খুন করার হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় রোববার রাতেই তিনি বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার অপর আসামীরা হলেন, স্থানীয় বাবু মোল্লার ছেলে মাসুদ মোল্লা, আইয়ুব মণ্ডলের ছেলে শাওন মণ্ডল ও নজরুল ম-লের ছোট ভাই মোস্তফা মণ্ডল।

মামলার এজাহারভুক্ত ৪নম্বর আসামী, দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় ১নম্বর ওয়ার্ড সদস্য কাশেম আলী খা বলেন, আমিও একজন বালু ব্যবসায়ী। মূলত বালু ব্যবসা নিয়ে বিরোধের কারণে আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। বাদীর আত্মীয় ছব্দুল খার ভাতিজা আমার সাথে ইউপি নির্বাচনে ফেল করার পর থেকে তাদের সাথে বিরোধ শুরু হয়েছে।

মামলার প্রধান অভিযুক্ত পৌর আ.লীগ নেতা নজরুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, আমি আসছে গোয়ালন্দ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী। রাজনৈতিকভাবে আমাকে হেয় করতে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। মামলার বাদী শফিকুল নামের কাউকে আমি চিনি না এমনকি কোনদিন কথা হয়েছে বলে মনেও পড়েনা। তাহলে চাঁদা দাবী করলাম কিভাবে?

উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লার সাথে কথা বলতে মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগ করে বন্ধ পাওয়া যায় বলে তাঁর সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন, ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ৬জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেছেন। ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ক্ষেত্রে অপরাধী সে যেই হোক, ছাড় দেওয়া হবে না।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102