January 20, 2022, 5:15 pm

গোয়ালন্দে নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সর্বহারা দলের সদস্য গ্রেপ্তার

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৩, ২০২০
  • 47 Time View
শেয়ার করুনঃ

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ বুধবার দিবাগত রাতে আলম ওরফে বেগী আলম (৪০) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। সে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের ছোটভাকলা গ্রামের উম্বার বেগীর ছেলে। পুলিশের দাবী, সে নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সর্বহারা দলের সক্রিয় সদস্য। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-তায়াবীর জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার (১২ আগষ্ট) দিবাগত রাত সাড়ে দশটার দিকে ছোটভাকলা কাটাখালী বাজারের কাছ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে গত ১ জুন গোয়ালন্দ ঘাট থানায় ছোটভাকলা ইউনিয়নের বড় ভাকলা গ্রামের জলিল সরদারের স্ত্রী রীনা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, রীনা বেগম বাড়ির বসতভিটা ভরাট করতে মাটি ভরাটের কাজ করছিলেন। এসময় পাশের এলাকার আলম ওরফে বেগী আলম তার (রীনা) কাছে ৭০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেন। দাবীকৃত টাকার মধ্যে ২০ হাজার টাকা গ্রহণও করেন। গত ৩০ মে রাতে বাকি ৫০ হাজার টাকা নেওয়ার জন্য বেগী আলম জলিল সরদারের বাড়িতে যায়। এসময় জলির সরদার বাড়িতে না থাকায় তার স্ত্রী রীনা বেগমের কাছে চাঁদার ৫০ হাজার টাকা দাবী করেন। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরদিন ১ জুন জলিল রীনা বেগম বাদী হয়ে বেগী আলমের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল-তায়াবীর জানান, এ ছাড়া বেগী আলমের বিরুদ্ধে ২০১৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ ঘাট থানায় চারটি অপহরণ, চাঁদাবাজি ও মারামারির মামলা রয়েছে। এছাড়া বেগী আলম নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন সর্বহারা দলের সক্রিয় সদস্য। এলাকায় তার নিজস্ব বাহিনী রয়েছে। বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে সে চলতো। আলমকে রীনা বেগমের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102