August 8, 2022, 1:20 am
শিরোনামঃ
দৌলতদিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে অবৈধ খননযন্ত্র ধ্বংস রাজবাড়ীতে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ থানায় মামলা দায়ের বিএনপি নেতা এ্যাডঃ আসলাম মিয়া অসুস্থ, সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা রাজবাড়ীতে শেখ কামালের ৭৩ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ গোয়ালন্দে যুবলীগের আয়োজনে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন গোয়ালন্দে নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন পালন টাকা ছিনিয়ে নিতেই খুন করা হয় মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুককে, অপর ভিক্ষুককে কুপিয়ে জখম গোয়ালন্দে চলন্ত ফেরি থেকে চার জুয়াড়ি গ্রেপ্তার, টাকা ও তাস জব্দ ক্যান্সারে আক্রান্ত আলিফের পাশে প্রথম আলো গোয়ালন্দ বন্ধুসভা

বরেণ্য সংগীতব্যক্তিত্ব, সুরকার ও গীতিকার আলাউদ্দীন আলী আর নেই

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, আগস্ট ৯, ২০২০
  • 76 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইল বিনোদন ডেস্কঃ বরেণ্য সংগীতব্যক্তিত্ব, বিশিষ্ট সুরকার আলাউদ্দীন আলী আর নেই। তিনি রোববার বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটে মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আলাউদ্দীন আলীর ছেলে শওকত আলী রানা গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শারীরিক অবস্থা খারাপের দিকে গেলে গতকাল শনিবার‍ ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে তাঁকে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। অবস্থা বিবেচনা করে তাঁকে লাইফ সাপোর্টে দেওয়া হয়। চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু সব চেষ্টা ব্যর্থ করে রোববার বিকেলে তিনি চলে যান না-ফেরার দেশে।

আলাউদ্দীন আলী ফুসফুসের প্রদাহ ও রক্তে সংক্রমণের সমস্যায় ভুগছিলেন দীর্ঘদিন। প্রথমে ২০১৫ সালের ৩ জুলাই আলাউদ্দীন আলীকে ব্যাংকক নেওয়া হয়েছিল। সেখানে পরীক্ষার পর জানা যায়, তাঁর ফুসফুসে একটি টিউমার রয়েছে। এরপর তাঁর অন্যান্য শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি ক্যানসারের চিকিৎসাও চলছিল। এর আগে বেশ কয়েক দফায় তাঁকে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। বাংলাদেশ ও ব্যাংককে তাঁর চিকিৎসা হয়েছে। সাভারে সেন্টার ফর রিহ্যাবিলিটেশন অব প্যারালাইজড কেন্দ্রেও চিকিৎসা নিয়েছেন দীর্ঘদিন।

আলাউদ্দীন আলী বাংলা গান, বিশেষ করে বাংলা চলচ্চিত্রে অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান তৈরি করেছেন। তিনি একই সঙ্গে সুরকার, সংগীত পরিচালক, বেহালাবাদক ও গীতিকার। গান লিখে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন। গুণী এই মানুষের জন্ম ১৯৫২ সালের ২৪ ডিসেম্বর মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামে। তাঁর বাবা ওস্তাদ জাদব আলী। মায়ের নাম জোহরা খাতুন।

সংগীত ব্যক্তিত্ব আলাউদ্দিন আলী। ছবি: সংগৃহীতসংগীত ব্যক্তিত্ব আলাউদ্দিন আলী। ছবি: সংগৃহীতদেড় বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে ঢাকার মতিঝিলের এজিবি কলোনিতে চলে আসেন আলাউদ্দীন আলী। তিন ভাই ও দুই বোনের সঙ্গে সেই কলোনিতেই বড় হন এই গুণী শিল্পী। সংগীতে প্রথম হাতেখড়ি ছোট চাচা সাদেক আলীর কাছে। পরে ১৯৬৮ সালে বাদ্যযন্ত্রশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রজগতে পা রাখেন। শুরুটা শহীদ আলতাফ মাহমুদের সহযোগী হিসেবে, পরে প্রখ্যাত সুরকার আনোয়ার পারভেজের সঙ্গে কাজ করেন দীর্ঘদিন।

লোকজ ও ধ্রুপদি গানের সংমিশ্রণে গড়ে ওঠা আলাউদ্দীন আলীর সুরের নিজস্ব ধরন বাংলা সংগীতে এক আলাদা ঢং হয়ে উঠেছে প্রায় চার দশক ধরে। বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের বহু স্বনামধন্য শিল্পী তাঁর সুরে গান করে নিজেদের সমৃদ্ধ করেছেন। তাঁর সুরারোপিত গানের মধ্যে ‘একবার যদি কেউ ভালোবাসত’, ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’, ‘ভালোবাসা যত বড় জীবন তত বড় নয়’, ‘দুঃখ ভালোবেসে প্রেমের খেলা খেলতে হয়’, ‘এই দুনিয়া এখন তো আর সেই দুনিয়া নাই’, ‘সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি ও আমার বাংলাদেশ’, ‘এমনও তো প্রেম হয়, চোখের জলে কথা কয়’, ‘হয় যদি বদনাম হোক আরও’, ‘প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গান রয়েছে।

তিনি ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ (১৯৭৯), ‘সুন্দরী’ (১৯৮০), ‘কসাই’ এবং ‘যোগাযোগ’ চলচ্চিত্রের জন্য ১৯৮৮ সালে শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮৫ সালে তিনি শ্রেষ্ঠ গীতিকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এ ছাড়া তিনি খ্যাতিমান পরিচালক গৌতম ঘোষ পরিচালিত ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালনা করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x