July 4, 2022, 12:18 am
শিরোনামঃ
শিক্ষক হত্যা ও লাঞ্ছনার প্রতিবাদে গোয়ালন্দে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত গোয়ালন্দের উজানচর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দ থানা পুলিশের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও হেরোইনসহ গ্রেপ্তার ৩ রাজবাড়ীতে কৃষকদের মাঝে কৃষি যন্ত্রপাতি ও পিকআপ ভ্যান বিতরন রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশনের ৪৫ সদস্যের দ্বি-বার্ষিক পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন পাবনার আ.লীগ নেতা গোয়ালন্দে হত্যায় ব্যবহৃত ট্রলার চালক গ্রেপ্তারের পর আদালতে স্বীকারোক্তি গোয়ালন্দে পুলিশের অভিযানে বিভিন্ন মামলার ৫ আসামী গ্রেপ্তার গোয়ালন্দে বাড়ির পুকুরে পরে মানসিক ভারসাম্যহীন শিশুর মৃত্যু বালিয়াকান্দিতে আওয়ামীলীগের কমিটি গঠনে হামলা, আহত ৩ পদ্মা হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন, জন্ম নেয়া কন্যা সন্তানকে স্বর্নের দুল উপহার

গোয়ালন্দ মোড় আ.লীগ কার্যালয় কেন্দ্র করে মারপিট ও ভাঙচুরের অভিযোগে মামলা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, জুলাই ২৪, ২০২০
  • 75 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ রাজবাড়ী জেলা সদরের শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের গোয়ালন্দ মোড়ে অবস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয় (বর্তমানে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ) কেন্দ্র করে ভাঙচুর ও মারপিটের ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহলাদীপুর ইউনিয়নের মো. আইয়ুব আলী খানের ছেলে ১৪জনের নাম উল্লেখ করে রাজবাড়ী সদর থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।

এজাহারভুক্তরা হলেন, মো. ফরিদ শেখ, মো. বাবু শেখ, মোস্তফা মেম্বার, মো. সোহেল মিজি, মো. শহিদ খান, মো. সুমন শেখ, কামাল পাটোয়ারী, রবিউল পাটোয়ারী, মো. জাকির পাটোয়ারী, রুবেল মন্ডল, মো. জুয়েল, আজিজ খন্দকার, মিঠু মিজি, হিমু খান সহ আরো অজ্ঞাত ২০/২৫ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার বাদী মো. আলম খান জানান, তার ভাই শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. শাহীন খানের সাথে সামাজিক ও রাজনৈতিক বিরোধ চলছিল। এর জেরে এজাহারে উল্লেখিত অভিযুক্ত আসামিরা তার ভাই মো. শাহীন খান সহ তার অনুসারী ও পরিবারের লোকজনদের খুন ও জখম করার সুযোগ খুঁজতে থাকে।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) বিকেলে বিরোধের মিমাংসা করতে খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ গোয়ালন্দ মোড়ে রাচ্চু খানের মালিকানাধীন আজিজ খান সুপার মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় দুই পক্ষকে ডেকে সমঝোতার বৈঠকের বসেন। বৈঠক শেষে মীমাংসায় উভয় পক্ষ সম্মত না হওয়ায় এজাহারভুক্ত ১নং আসামী ২নং আসামীকে বিরোধী পক্ষকে আঘাত করতে হুকুম দেয়। এক পর্যায়ে সেখানে মোস্তফা মেম্বারসহ তার সঙ্গীরা দেশীয় অস্ত্র, লাঠি, রামদা, বাটাম সহ বিভিন্ন সরঞ্জাম দিয়ে শাহীন খানকে মেরে ফেলার উদ্দেশে কোপানো ও এলাপাথারী আঘাত করতে থাকে। এসময় শাহীন খানের পক্ষের ৫/৬জন যখম হয়। আহতদের মাথা, পিঠে পায়ে, হাতে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতর চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় মো. শাহীন খান আহত হন। মারাত্বক জখম হন রাকিব খান, আসিব খান, হাবিব খান, মিতুল, সোহাগ বেপারী, খালেক সরদার সহ আরো ১০/১২ জন। আহতরা সবাই ফরিদপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করে বাড়ি ফিরেছে। বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের আসবাব পত্র, চেয়ার টেবিল, ভাঙচুড় করে প্রায় ৪০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। এ সময় শাহীন খানের চিৎকার শুনে আশপাশের মানুষ ছুটে আসলে আসামীরা প্রাননাশের হুমকি দিয়ে স্থান ত্যাগ করে। তারা যাওয়ার সময় বলে এ বিষয়ে মামলা করিলে তাদের বাড়ি-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হবে। সবাইকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির হুমকিও দেওয়া হয়।

শাহীন খান বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ কার্যালয়টি আগে শহীদ ওহাবপুর ইউনয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় ছিল। এই কার্যালয়টি তিনি তার নিজের অর্থে ও নিজের নামে জমি লিজ নিয়ে করেছিলেন। এই কার্যালয়কে কেন্দ্র করে চলমান বিরোধের জের ধরে গত মঙ্গলবার মিমাংসার জন্য বসেছিলেন দু’পক্ষ। তবে দুই পক্ষের মধ্যে কোন বিষয়ে সুরাহা না হওয়ায় তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়। মারপিটের ঘটনা ও ভাংচুর করে এজাহারে উল্লেখিত নামের আসামীরা। গত বছর নভেম্বর মাসে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। প্রকৃত পক্ষে সে সময় থেকে সাবেক আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. শাহীন খান ও বর্তমান সাধারন সম্পাদক মো. মোস্তফা’র মধ্যে বিরোধ শুরু হয়। তবে এ ঘটনার সময় খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অফিসার ইনচার্জ উপস্থিত থাকার পরও কিভাবে সেখানে এতবড় ঘটনা ঘটল সেটা বুঝতে পারছেন না তিনি। এ জন্য সে সময় তেমন কোন ব্যবস্থাও গ্রহন করেনি খানখানাপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ।

এ প্রসঙ্গে রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, গোয়ালন্দ মোড়ের ঘটনায় মামলা রুজু করা হয়েছে। এ মামলায় তদন্তভার দেওয়া হয়েছে খানখানাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জকে।

Please Share This Post in Your Social Media

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x