September 25, 2021, 3:34 pm
Title :
রাজবাড়ীতে পদ্মার গর্ভে বিলীন চরনিসিলিমপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন সংবাদ সম্মেলন জেলা আ.লীগের সভাপতি প্রার্থীতা ঘোষনা দিলেন সাংসদ কাজী কেরামত রাজবাড়ীতে বাইসাইকেল পেলো ৯৮ গ্রাম পুলিশ গোয়ালন্দে মাদক সেবনকারী ৫ ব্যাক্তিকে ৩ মাস করে কারাদণ্ড প্রদান পাংশায় মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজের দুই দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার রাজবাড়ীতে বিদুৎ স্পর্শে ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মৃত্যু রাজবাড়ীতে আ.লীগের বর্ধিত সভাঃ ‘দলকে শক্তিশালী করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান’ গোয়ালন্দে ভ্রাম্যমাণ আদালত কতৃক মুরগীর খামারীকে জরিমানা প্রয়াত নুরু মন্ডলের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহ্ফিল ও স্বরণ সভা রাজবাড়ীতে স্বপ্নচূড়া’র আয়োজনে শাহ আব্দুল করিমে’র মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

রাজবাড়ীর মিজানপুরে বন্যার্তদের চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, জুলাই ২১, ২০২০
  • 32 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ দু’দফায় বন্যায় রাজবাড়ীর পদ্মার দুর্গম চরাঞ্চলের মানুষ দুর্ভোগে জীবন যাপন করছে। সবকিছু তলিয়ে যাওয়ায় ছিল না তাদের ঘরে খাবার। এমন পরিস্থিতিতে সরকারের জিআর এর বিশেষ বরাদ্দ হিসেবে বন্যার্তদের ত্রানের চাল বিতরন কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করেছে। অথচ বন্যার্ত এসব মানুষের চাল বিতরনে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী বানভাসিরা।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের ১, ২, ৩, ৬, ৭, ৮ এবং ৯নং ওয়ার্ডের বানভাসীদের ১০ কেজি হারে চাল বিতরনের কথা ছিল। সে হিসেবে এসব অসহায় পাঁচ শতাধিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের মাঝে মঙ্গলবার সকালে গোদার বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাল বিতরন করা হয়। ১০ কেজি চাল দেয়ার কথা থাকলেও সেখানে ওজনে কম দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ১০ কেজির পরিবর্তে দেওয়া হয় ৮ কেজি ১০০ গ্রাম থেকে সাড়ে ৮ কেজি করে।

চাল নিতে আসা বন্যার্ত এসব মানুষ বলেন, এমনিতেই তারা অসহায় জীবন যাপন করছে। তারপরও যদি তাদের ঠিকমত চাল দেয়া হত, এ দুঃসময়ে তাহলে আরো একটু ভালো হতো। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিযোগে বলেন, স্থানীয় বাজারের দোকানে চাল ওজন দিয়ে তারা সেখানে কম পেয়েছেন।

এদিকে ভুক্তভোগী আরো অনেক পরিবার চাল নিতে এসেও কার্ড না থাকায় বাড়িতে খালি হাতে ফিরে গেছেন। অন্যদিকে এই স্কুলে ৫০০ জনের চাল বিতরন করার কথা থাকলেরও সেখানে সম্পূর্ণ চাল বিতরন করা হয়নি বলে জানান স্থানীয়রা। অন্যান্য আরো ২টি ওয়ার্ডের বৃষ্টির পানিতে তাদের ফসলী ক্ষেত তলিয়ে গেলেও তাদের এ ত্রানের তালিকায় কোন সহযোগীতা করা হয়নি। ইউনিয়নের যে ৩ জন সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য রয়েছে তাদের এলাকায়ও পুরুষ সদস্যদের চালের কার্ড দেওয়া হলেও সেখানে এ ৩ জন মহিলা সদস্য কোন ত্রানের চালের কার্ড পাননি বলে অভিযোগে বলেন।

অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে মিজানপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তার ফোনটি বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102