November 30, 2022, 4:17 am
শিরোনামঃ
পদ্মা নদীর সেই আড়াআড়ি বাঁশের বেড়া অপসারণ রাজবাড়ীতে যুবদল নেতার হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও পাঁচজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড গোয়ালন্দে বিজয় দিবসের প্রস্তুতি সভাঃ স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের কেউ উপস্থিত থাকবেনা গোয়ালন্দের রাজিন শাহরিয়ার ভুবন বরিশাল বোর্ডে মেধা তালিকায় প্রথম প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে মানহানিকর কমেন্টস এর অভিযোগে তরুণ গ্রেপ্তার পদ্মার এক ঢাই ২৬ হাজার আর এক কাতল বিক্রি হলো ২১ হাজারে যশোরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় চুরি হওয়া মোবাইলফোন গোয়ালন্দে উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২ গোয়ালন্দে বেরজালে উঠে আসলো ৯ কেজির চিতল, ১২ হাজারে বিক্রি রাজবাড়ীতে কাজী হেদায়েত হোসেন স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, সভাপতি-হাবিব, সম্পাদক-শামীম

আতঙ্কে মানুষঃ জোঁড়াতালিই যেন একমাত্র ভরসা নগরকান্দার ব্রিজটি

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, জুলাই ১৭, ২০২০
  • 122 Time View
শেয়ার করুনঃ
হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুরঃ ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে কুমার নদীর উপর অবস্থিত একমাত্র লোহার ব্রিজটি  যেন জোঁড়াতালিই ভরসা। ব্রিজটিতে সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য গর্ত ও ছিদ্রের। এতে যে কোনো সময় ব্রিজটি ভেঙ্গে ঘটতে পারে বড় ধরণের প্রাণহাণীর মতো ভয়াবহ ঘটনা। সময়ের বিবর্তনে সারা দেশের ন্যায় নগরকান্দায় উন্নয়নের ফলে জনবসতি ও যান চলাচল বেড়ে গেছে অনেক গুণে। সময়ের পরিবর্তনে সব কিছুই পরিবর্তিত হলেও আজও কোন পরিবর্তন হয়নি এই বেইলী ব্রীজটির।
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, রীতিমত চলছে সেতুটির জোঁড়াতালির কাজ। প্রায় প্রতি মাসেই দিতে হয় জোঁড়াতালি। নগরকান্দার অত্যন্ত ব্যস্ততাপূর্ণ জায়গায় এই সেতুটি অবস্থিত হওয়ায় মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই। এখানে প্রায় সব সময় লেগেই থাকে যানজট। পাঁশেই সরকারি নগরকান্দা এম এন একাডেমীর ছাত্র-ছাত্রীদের ভোগান্তির ও শেষ নেই। ছাত্র-ছাত্রীদের এ ভোগান্তির কারণে অভিবাবকরাও হতাশাগ্রস্থ।
এদিকে নগরকান্দা ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এম্বুলেন্সসহ জরুরী প্রয়োজনের যানবাহনগুলোও এ সেতুর অভিশাপ থেকে মুক্ত নয়।
এলাকাবাসি জানায়, নগরকান্দা ও সালথা আসনের সাংসদ ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী বার্ধক্য জনিত কারণে অসুস্থ থাকায় এ দিকে লক্ষ্য করা হয়তো তাঁর পক্ষে সম্ভব হয় না। তবে স্থানীয়দের প্রশ্ন তাঁর প্রতিনিধি হিসেবে যাঁরা কাজ করছেন তাঁরা কি এ বিষয়ে আদৌ কোন পদক্ষেপ নিবেন না ?  স্থানীয় সাধারণ মানুষ হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমরা প্রতিদিন অত্যন্ত ঝু্ঁকি নিয়ে এ সেতু পারাপার করি, প্রতিনিয়ত আতঙ্কের মধ্যে থাকি।
স্থানীয় জুঙ্গুরদী গ্রামের এহসানুল হক মিয়া নামের এক ব্যক্তি বলেন, এ বেইলি ব্রীজের কারণে নগরকান্দার ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সেবা বিঘ্নিত হচ্ছে। তিনি বলেন, নগরকান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে মুমূর্ষু রোগী ফরিদপুর নেওয়ার সময় এম্বুলেন্সগুলো মাঝেমধ্যেই ব্রীজের যানজটে আটকে থাকে এবং স্থানীয় শতবর্ষী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি এম,এন একাডেমীর ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতও বিঘ্নিত হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, আমাদের পার্শবর্তী নতুন উপজেলা সালথায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকলে ও আমাদের নগরকান্দা আজ এতো অবহেলিত কেন? কি অপরাধ আমাদের নগরকান্দাবাসীর?
এদিকে নগরকান্দা পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নগরকান্দা পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র নিমাই সরকার বলেন, সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর প্রতিনিধি হিসেবে নগরকান্দা যাঁরা কাজ করছেন, তাঁরা নগরকান্দার ব্যাপারে যথেষ্ট আন্তরিক। তিনি বলেন, শুনেছি এই বেইলী ব্রিজটি ভেঙ্গে এখানে অধুনিক একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। সড়ক বিভাগ একাধিকবার মাপও নিয়েছে। কিন্তু কোনো এক অদৃশ্য শক্তির কারণে এখনও হয়নি  সেতুর কাজটি।
স্থানীয় জনসাধারণের প্রাণের দাবী, অনতিবিলম্বে এ সেতুর নির্মাণ কাজ দ্রুত শুরু করা হোক। এ সেতুটি যে কোন মুহূর্তে ভেঙ্গে পড়লে শত শত মানুষের প্রাণহানী ঘটতে পারে। হয়তো আমদেরই কেউ না কেউ যোগ দিতে পারে সেই লাশের মিছিলে। কে নিবে সেই ক্ষতিপূরণের দায়ভার। সাধারণ মানুষের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন স্থানীয়রা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102