০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে ‘কোভিড-১৯’ মোকাবেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিতরণ নিয়ে মতবিনিময় সভা

হেলাল মাহমুদঃ রাজবাড়ীতে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিতরণ নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারী কর্মকমিশন সচিবালয়ের সচিব মোছা. আছিয়া খাতুন।

অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুর জব্বার, রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম, ১০ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসার ল্যাফটেনেন্ট কর্ণেল মঞ্জুরুল হক, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী, রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইমদাদুল হক বিশ্বাস, বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ, পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফরিদ হাসান ওদুদ, কালুখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলিউজ্জামান চৌধুরী টিটো, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামন চৌধুরী আসাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আশিক মাহমুদ মিতুল, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলম শফিসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ সহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।

সরকারী কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান মোছা. আছিয়া খাতুন বলেন, কুইক রেসপন্স টিম তৈরি করে তৃণমূল পর্যায় থেকে জেলা পর্যায় পর্যন্ত করোনা রোগীদের সাহায্য করতে হবে। তা না হলে কোন ক্রমেই করোনাভাইরাস মোকাবেলা করা সম্ভব হবে না। ত্রাণ বিতরণ নিয়ে তিনি বলেন সরকারী ত্রাণ সহায়তা যেন প্রকৃত অসহায় ব্যক্তিরা বাদ না পরে সেজন্য আমাদের সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। করোনা পরবর্তী সময়ে রাজবাড়ীর কৃষি ব্যবস্থা যেন শক্ত অবস্থানে থাকে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. জিল্লুল হাকিমের প্রতিনিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও এমপি পুত্র মো. আশিক মাহমুদ মিতুল। পাংশা-বালিয়াকান্দি-কালুখালীতে করোনার সময়কালে জেলা প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সমন্বয় করে কাজ করছে বলে সচিবকে আস্বস্ত করেন।

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেন সরকারী কর্মকমিশন সচিবালয়ের সচিব মোছা. আছিয়া খাতুন। পরে তিনি বিকেলে জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় নদী ভাঙন ও বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে যোগদেন।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

রাজবাড়ীতে ‘কোভিড-১৯’ মোকাবেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিতরণ নিয়ে মতবিনিময় সভা

পোস্ট হয়েছেঃ ১১:২০:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০

হেলাল মাহমুদঃ রাজবাড়ীতে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিতরণ নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারী কর্মকমিশন সচিবালয়ের সচিব মোছা. আছিয়া খাতুন।

অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুর জব্বার, রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম, ১০ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসার ল্যাফটেনেন্ট কর্ণেল মঞ্জুরুল হক, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী, রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইমদাদুল হক বিশ্বাস, বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ, পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফরিদ হাসান ওদুদ, কালুখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলিউজ্জামান চৌধুরী টিটো, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামন চৌধুরী আসাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আশিক মাহমুদ মিতুল, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলম শফিসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ সহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।

সরকারী কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান মোছা. আছিয়া খাতুন বলেন, কুইক রেসপন্স টিম তৈরি করে তৃণমূল পর্যায় থেকে জেলা পর্যায় পর্যন্ত করোনা রোগীদের সাহায্য করতে হবে। তা না হলে কোন ক্রমেই করোনাভাইরাস মোকাবেলা করা সম্ভব হবে না। ত্রাণ বিতরণ নিয়ে তিনি বলেন সরকারী ত্রাণ সহায়তা যেন প্রকৃত অসহায় ব্যক্তিরা বাদ না পরে সেজন্য আমাদের সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। করোনা পরবর্তী সময়ে রাজবাড়ীর কৃষি ব্যবস্থা যেন শক্ত অবস্থানে থাকে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. জিল্লুল হাকিমের প্রতিনিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও এমপি পুত্র মো. আশিক মাহমুদ মিতুল। পাংশা-বালিয়াকান্দি-কালুখালীতে করোনার সময়কালে জেলা প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সমন্বয় করে কাজ করছে বলে সচিবকে আস্বস্ত করেন।

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেন সরকারী কর্মকমিশন সচিবালয়ের সচিব মোছা. আছিয়া খাতুন। পরে তিনি বিকেলে জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় নদী ভাঙন ও বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে যোগদেন।