November 30, 2022, 3:30 am
শিরোনামঃ
পদ্মা নদীর সেই আড়াআড়ি বাঁশের বেড়া অপসারণ রাজবাড়ীতে যুবদল নেতার হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও পাঁচজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড গোয়ালন্দে বিজয় দিবসের প্রস্তুতি সভাঃ স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের কেউ উপস্থিত থাকবেনা গোয়ালন্দের রাজিন শাহরিয়ার ভুবন বরিশাল বোর্ডে মেধা তালিকায় প্রথম প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে মানহানিকর কমেন্টস এর অভিযোগে তরুণ গ্রেপ্তার পদ্মার এক ঢাই ২৬ হাজার আর এক কাতল বিক্রি হলো ২১ হাজারে যশোরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় চুরি হওয়া মোবাইলফোন গোয়ালন্দে উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২ গোয়ালন্দে বেরজালে উঠে আসলো ৯ কেজির চিতল, ১২ হাজারে বিক্রি রাজবাড়ীতে কাজী হেদায়েত হোসেন স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, সভাপতি-হাবিব, সম্পাদক-শামীম

রাজবাড়ীতে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত, তলিয়ে গেছে ফসল, গো খাদ্যের সংকট

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, জুলাই ৫, ২০২০
  • 108 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ রাজবাড়ীতে প্রতিদিন পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে পদ্মা নদী তীরবর্তী নিম্নাচল প্লাবিত হচ্ছে। শত শত একর ফসলী জমি ইতমধ্যে পানিতে তলিয়ে গেছে। নষ্ট হচ্ছে তলিয়ে যাওয়া এসব ফসল। নিচু অঞ্চলে বসবাসরত কয়েকশ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পরেছে। রাস্তা ঘাট, বাজার, বিশেষ করে ফসলি জমি ডুবে যাওয়ার কারনে গবাদি পশুর খাবার সংকট দেখা দিয়েছে। গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া গেজ স্টেশনে নদীতে পানি ৩ সেন্টিমিটার কমে বিপদ সিমার ৪৩ সে. মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

জেলার ৫টি উপজেলার চারটি উপজেলার নিম্নাঞ্চল এখন পদ্মার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। পদ্মার নিম্নাঞ্চলের বেশির ভাগ এলাকার মধ্যে কালুখালী উপজেলার কালিকাপুর ও রতনদিয়া, ইউনিয়নের হরিনবাড়িয়া, মাধবপুর, রক্ষনদিয়া, কৃষ্ণনগর, রাজপুর, সাভাড়িয়া পাড়া, শিকদার পাড়া, হড়িন ডাঙ্গা এলাকার কয়েকশ হেক্টর ফসলীজমি পানিতে তলিয়ে গেছে এবং পানিবন্দি হয়ে পরেছে পরিবার। সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের মহাদেবপুর, সোনাকান্দর, সেলিমপুর, চরধুঞ্চি, বড়চর বেনিনগর এলাকার প্রায় ৬০০ পরিবার, খানগঞ্জের চর শিবরামপুর, রানীনগর, চড়হাটবাড়িয়া, বিল নুরুদ্দিনপুর এলাকার প্রায় ৪০০ পরিবার, চন্দনী ইউনিয়নের জৌকুড়া , ধাওয়াপাড়া, চড় নন্দলালপুর এলাকার ৬০০ পরিবার ও শত শত বিঘা ফসলী জমি তলিয়ে গেছে।

এছাড়া বরাট, গোয়ালন্দের ছোটভাকলা, দেবগ্রাম ও দৌলতদিয়া, পাংশার হাবাসপুরসহ নিম্নাঞ্চলের প্রায় ৩০টি গ্রামের ৩০ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে কয়েক হাজার হেক্টর ফসলী জমি। যেখানে ধান পাট, ভুট্টা, ধানের বীজতলা, মসলা জাতীয় সোয়াজ, বিভিন্ন ধরনের সবজি, মরিচ, বাদাম, পাটল, ঝিঙ্গাসহ ফসলী জমি তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকেরা এখন মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এদিকে ফসলী মাঠ তলিয়ে যাওয়ার কারনে গো খাদ্যের সংকট চলছে এখন চরমে।

পানিবন্দীরা জানান, কয়েকদিনের পানি বৃদ্ধিতে তাদের এলাকার ফসলি জমি, রাস্তা-ঘাট তলিয়ে গেছে। বসতবাড়ীতে পানি উঠেতে শুরু করেছে। পানির কারণে চলাফেরা, রান্না-খাওয়া দাওয়া, গবাদি পশুর খাবার নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। এখন পর্যন্ত পাননি সরকারে কাছ থেকে কোন সহযোগীতা। বাড়ীর চারপাশে পানি থাকায় চলাচলের একমাত্র মাধ্যম হিসেবে নৌকা ও কলা গাছের ভেলা ব্যবহার করছেন ভুক্তভোগী পানিবন্দি মানুষ।

জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বলেন, পদ্মানদীর বাধের নিম্নাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা দেখতে গিয়ে ছিলেন। এর মধ্যে যদি কোন মানুষ পানিবন্দি হয়ে পরে বা তাদের কোন সহযোগীতা প্রয়োজন পরে তাহলে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে উপজেলা প্রশাসন ও প্রকল্প বাস্তিবায়ন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া আছে পানিবন্দি মানুষের সহযোগীতা দেওয়ার। পদ্মানদী তীরবর্তী অঞ্চলের যেসব মানুষ পানিবন্দি হয়েছেন তাদের ত্রান সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102