September 25, 2022, 11:20 pm
শিরোনামঃ
রাজবাড়ীতে সাবেক চেয়ারম্যান লতিফ হত্যার আসামীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন রাজবাড়ীর পদ্মা নদী তীরবর্তী এলাকায় বাড়ছে গরু চুরির ঘটনা, আতঙ্কে অঞ্চলবাসী গোয়ালন্দ হাসপাতালে উপকরণ সামগ্রী প্রদান করলো মোস্তফা মেটাল গোয়ালন্দে লোটাস কলেজিয়েট স্কুলের অভিভাবক সমাবেশ দৌলতদিয়ায় ৫১ হাজার টাকায় বিক্রি হলো ৩৮ কেজির আরেকটি বিপন্ন বাগাড় গোয়ালন্দে থানা পুলিশের অভিযানে ৮২ বোতল ফেন্সিডিলসহ দুই বাসযাত্রী গ্রেপ্তার রাজবাড়ীতে সপ্তম শ্রেনী পড়ুযা শিশু শিক্ষাথীকে ধর্ষন, গ্রেপ্তার ১ ফরিদপুরে আয়েশা শরীয়তউল্লাহ্র মৃত্যু বাষির্কীতে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হলেন গোয়ালন্দের সুশিল রায় ও নাসরিন আক্তার রাজবাড়ীতে সামাজিক সম্প্রিতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত

পদ্মা নদীতে জেলেদের জালে এবার ২৫ কেজি ওজনের বাগাইড় মাছ!

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, জুন ২৩, ২০২০
  • 102 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইলে ডেস্কঃ এবার রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মা নদীতে প্রায় ২৫ কেজি ওজনের বাগাইড় মাছ পাওয়া গেছে। সোমবার দিবাগত মধ্যরাতের দিকে আব্দুল জব্বার নামের এক জেলের জালে ওই মাছটি আটক হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকালে ওই মাছটি দৌলতদিয়া বাজারের এক ব্যবসায়ী ১০৫০ টাকা কেজি দরে কিনে নেন।

চান্দু মোল্লা নামের দৌলতদিয়া ঘাটের ওই মাছ ব্যবসায়ী জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার দিবাগত রাতে জেলে আব্দুল জব্বার হালদার অন্যান্য সহকর্মীদের সাথে নিয়ে নদীতে মাছ ধরতে যায়। গোয়ালন্দ উপজেলার শেষ সীমানা পাবনার বেড়া থানার ঢালার চর এলাকায় জাল ফেলে। মধ্যরাতের দিকে জাল টেনে গোয়ালন্দের দেবগ্রামের বেতকা এলাকায় নৌকায় তুলতে গেলে জাল গোছানোর প্রায় শেষ দিকে এসে একটা বড় ঝাকি দেয়। তখনই বুঝতে পারে জালে কোন বড় মাছ আটকা পড়েছে। প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টার পর জাল গোছানো শেষে নৌকায় তোলার সময় দেখতে পান বড় আকারের একটি বাগাইড় মাছ আটক হয়েছে। পরে কয়েকজন মিলে মাছটি টেনে নৌকায় তুলেন। বিক্রির জন্য ভোরেই নিয়ে আসেন দৌলতদিয়া ঘাট বাজারে। সেখানে স্থানীয় এক আড়তে মাছটি ডাকের জন্য তোলা হলে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ১০৫০ টাকা কেজি দর হিসেবে চান্দু মোল্লা মাছটি কিনে নেন।

চান্দু মোল্লা আরো বলেন, মাছটি আড়তদারের কাছ থেকে কিনে নিয়ে আমি দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের পন্টুনের সাথে বেধে রাখি বিক্রির জন্য। জেলে আব্দুল জব্বার আড়তদারের কাছ থেকে মাছ বিক্রির টাকা নিয়ে যায়। মাছটি বিক্রির পর আড়তদারের ঘরে টাকা দিয়ে দিব। এমন কথার ভিত্তিতে কিছু টাকা বায়না সূত্রে মাছটি কিনে বিক্রির জন্য নিয়ে আসি। দুপুরের দিকে ঢাকার এক বড় ব্যবসায়ীর সাথে যোগাযোগের পর ১১০০ টাকা দরে মাছ বিক্রির সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে লোক মারফত মাছটি ঢাকায় পাঠিয়ে দিয়েছি। এর আগে গত ১২ মে দিবাগত মধ্যরাতে এই নদীতে প্রায় ৩০ কেজি ওজনের একটি কাতল মাছ জেলেদের জালে ধরা পড়ে।

চান্দু মোল্লা রাজবাড়ীমেইলকে বলেন, সাধারণত পদ্মা নদীতে বড় মাছ খুব একটা ধরা পড়ে না। তবে মাঝেমধ্যে এক-দুটি দেখা যায়। এর আগে আরো একটি বড় বাগাইড় মাছ ধরা পড়েছিল। সেটিও আমি কিনেছিলাম। তবে ওই মাছটি এতবড় ছিল না। স্থানীয়ভাবে এতবড় মাছ সহজে বিক্রি হয়না। তবে ফেরি ঘাট দিয়ে আসা-যাওয়ার পথে পরিচিত হওয়া অনেক বড় বড় ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতা, সরকারি আমলা বা শিল্পপতিরা এ ধরনের মাছ কিনে নেয়। এমনকি পদ্মা নদীতে এমন বড় মাছ ধরা পড়লে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে বলে।

উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা রেজাউল শরীফ বলেন, বর্ষা মৌসুম শুরু হয়েছে। এ সময় নদীতে মাঝেমধ্যে বড় বড় পাঙ্গাশ, কাতল, বাগাইড় জাতীয় মাছ ধরা পড়বে। পদ্মা নদীর মাছ সবার কাছেই সুস্বাদু। তাই বড় মাছের কদর সব সময় বেশি থাকে। তবে স্থানীরা এতবড় মাছ সহজে কিনতে পারে না। বা কেনার সামর্থ থাকলেও অনেক সময় ঘাট এলাকার ব্যবসায়ীরা অধিক মুনাফার আশায় অন্যত্র যোগাযোগ করে বিক্রি করে থাকে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102