December 8, 2022, 8:11 am
শিরোনামঃ
রাজবাড়ী সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তার চেয়ার দাবীদার দুই কর্মকর্তা! বালিয়াকান্দিতে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে দুই দিন ব্যাপি তথ্য মেলা উদ্বোধন গোয়ালন্দে প্রতিবন্ধীদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ সামগ্রী বিতরণ দৌলতদিয়া বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের দপ্তর সম্পাদক হলেন সাংবাদিক শেখ রাজীব চার গ্রামের মানুষের চলাচলের একমাত্র ভরসা নড়বড়ে বাশের সাঁকো বালিয়াকান্দিতে কাঠ পোড়ানোর দায়ে দুই ইটভাটা মালিককে জরিমানা-মামলা পাংশায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে বিএনপির ১৩ নেতাকর্মীর নামে থানায় মামলা বালিয়াকান্দিতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার আ.লীগ ও বিএনপি ৩২ বছর ধরে লুটপাট করছে -রাজবাড়ীতে মুজিবুল হক চুন্নু

করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করেন স্কুল শিক্ষক রিয়াজুল ইসলাম

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, জুন ৬, ২০২০
  • 103 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ আইডিয়াল হাই স্কুলের সহকারী শিক্ষক রিয়াজুল ইসলাম (৫৩) করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তিনি ইংরেজি দৈনিক নিউনেশন পত্রিকার গোয়ালন্দ উপজেলার সাবেক প্রতিনিধি ছিলেন। শুক্রবার (৫ জুন) বিকেলে তিনি বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত ফরিদপুর নেওয়ার পথে তিনি এ্যাম্বুলেন্সে মারা যান।

তিনি গোয়ালন্দ পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কলেজ পাড়া মহল্লার বাসিন্দা। গোয়ালন্দ জে.এন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রয়াত জ্যেষ্ঠ শিক্ষক ওসমান গনি মোল্লার একমাত্র ছেলে। শুক্রবার রাত দশটার দিকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে তাঁর নামাজে জানাযা শেষে পৌরভার কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।

রিয়াজুল ইসলামের ভগ্নিপতি সরকারি গোয়ালন্দ কামরুল ইসলাম কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল আউয়াল বলেন, রিয়াজুল ইসলাম দীর্ঘদিন ডায়াবেটিকস, হৃদরোগসহ কিডনি রোগে ভুগছিলেন। ইতিপূর্বে তিনি স্ট্রোকও করেছিলেন। শুক্রবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি দেখে দ্রুত এ্যাম্বুলেন্সযোগে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। ফরিদপুর পৌছানোর আগেই পথিমধ্যে তিনি মারা যান।

রিয়াজুল ইসলামের ছেলে রাকিবুল ইসলাম শ্রাবন জানান, কয়েকদিন ধরে বাবার শরীরে জ¦র, শরীর ব্যাথা ও কাশি ছিল। মৃত্যুর আগের দিন তার জ¦র ছিল না। তবে শরীর ও গলা ব্যাথা অনুভব করছিল। শুক্রবার বিকেলের দিকে প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে দ্রুত ফরিদপুর যাবার পথেই এ্যাম্বুলেন্সেই মারা যান। এসময় সাথে আমি, মা ও নানু ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, ফরিদপুর সদর হাসপাতালে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জ্বর ও অন্যান্য উপসর্গ শুনে কেউ ভিড়ছিলনা। যে এ্যাম্বুলেন্সে গেছিলাম তারাও আনতে চাচ্ছিলনা। পরবর্তীতে আমার ছোট ফুপা গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র শেখ মো. নিজামের হস্তক্ষেপে ওই এ্যাম্বুলেন্সে লাশ নিয়ে সন্ধ্যার পরই বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করি। কয়েক কিলোমিটার দুর ধুলদি রেলগেট পৌছলে হাসপাতাল থেকে ফোন করে আমাদের ফরিদপুর ফিরিয়ে নেওয়া হয়। পরে করোনার নমুনা (সেম্পুল) সংগ্রহ শেষে গোয়ালন্দ ফিরে আসি।

গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে রাজবাড়ীমেইলকে জানান, স্কুল শিক্ষক রিয়াজুল ইসলাম জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে ভুগছিলেন। শুক্রবার রাতেই ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তাঁর করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরিবারের সকল সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। আগামীকাল রোববার পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102