September 30, 2022, 5:57 am
শিরোনামঃ
দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ভাঙন, বসতভিটা বিলীন, তিন ফেরিঘাট বন্ধ গোয়ালন্দে পুলিশের হাতে ইয়াবাবড়ি ও ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার ৫ অস্ত্র-গুলি ও সহযোগীসহ পাংশার পৌরসভার কাউন্সিলর গ্রেপ্তার গোয়ালন্দে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত গোয়ালন্দে মা ও শিশু ওয়ার্ড এবং পোষ্ট অপারেটিভ ওয়ার্ড উদ্বোধন মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড হস্তান্তর গোয়ালন্দে মাদক বিরোধী প্রীতি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দে সামাজিক-সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ সম্পন্ন দৌলতদিয়ায় পদ্মার ১৩ কেজির বোয়াল বিক্রি হলো ২৮ হাজারে

রাজবাড়ীর সেই শিক্ষার্থীর পড়াশুনার দায়িত্ব নিলেন কৃষকলীগ নেতা হক

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, জুন ৩, ২০২০
  • 364 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ শারীরিক প্রতিবন্ধী হাবিবুর রহমানের পড়াশুনার দায়িত্ব গ্রহণ করলেন বাংলাদেশ কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বৃহত্তর ফরিদপুর অঞ্চলের প্রধান সমন্বয়কারী নুরে আলম সিদ্দিকী হক। দরিদ্র ঘরের সন্তান হাবিবুর রহমান এ বছর এসএসসি সমমান দাখিল পরীক্ষায় জিপিএ ৪.৬৩ পেয়ে পাস করেছে।

হাবিবুর রহমান রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মৃগী ইউনিয়নের হেমায়েতখালী গ্রামের আব্দুস সামাদ মিয়া ও হেলেনা খাতুন দম্পতির সন্তান। জন্মের সময় থেকে হাবিবের দুটি হাত নেই। দরিদ্র ঘরের এমন সন্তান জন্ম নেওয়ায় পরিবারের সদস্যরা হতাশায় ভুগলেও নাড়ি ছেড়া ধনকে কেউ কি আলাদা করতে পারে। দিনমজুর কৃষক বাবা আব্দুস সামাদ মিয়া চোখে খুব ভালো দেখেননা। দৃষ্টি শক্তি কম থাকায় কাজ করতে অনেক কষ্ট হয়। তা সত্বেও সংসারের তিন মেয়ে এবং এক ছেলেকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করার আপ্রাণ চেষ্টা ছিল তাঁর। দুটি হাত না থাকা সত্বেও বাবাকে কৃষি কাজে সাধ্যমতো সহযোগিতা করতো হাবিব। বড় দুই বোন পাংশা সরকারি কলেজের অর্নাস দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ছোট মেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়াশুনা করে।

হাবিবের চাচা আব্দুল খালেক জানান, পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের পড়াশুনা দেখে হাবিবও পড়াশুনার প্রতি আগ্রহ দেখায়। কিন্তু কিভাবে পড়াশুনা করবে। তার দুটি হাত নেই। পা দিয়েই লেখার অভ্যাস শুরু করে হাবিব। এভাবে চেষ্টা করতে করতে এক সময় সফলতাও আসে। সাধারণ মানুষের হাতে লেখার মতো হাবিবের পা দিয়ে লেখাটাও তেমনি সুন্দর। অদম্য মনোবল আর ইচ্ছা শক্তির জোড়ে পরিবারের সবার অনুপ্রেরণায় হাবিব পড়াশুনা চালিয়ে যায়। প্রাথমিক সমাপনী ও জেডেসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে পাস করে। পরবর্তীতে সে পাংশার পুইঁজোর ফাযিল মাদ্রাসা থেকে সে এবছর দাখিল পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। গত ৩১ মে ফলাফল বের হলে সে জিপিএ ৪.৬৩ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে পাস করে। হাবিব অন্যান্যদের মতো স্বাভাবিক কাজ করতে পারে। তবে তাকে খাওয়া ও গোসল করিয়ে দিতে হয়। তার মাই এসব কাজ করে দেন।

হাবিবের মা হেলেনা খাতুন জানান, জন্ম থেকেই হাবিবের দুটি হাত নেই। এটা যে কোন বাবা-মায়ের জন্যই অনেক কষ্টের। কিন্তু নিজের সন্তান বলে কথা। হাবিবকে অনেক ভালোবাসি। ওর পড়াশুনার আগ্রহ দেখে আমরাও উৎসাহ দিয়েছি। ও যতটুকো অর্জন করেছে আমরা তাতেই খুশি। ওর পড়াশুনার ঝোঁক দেখে আমাদেরও ইচ্ছা জাগে কিছু করতে। কিন্তু পরিবারের সে সামর্থ তো নেই। তিনটি মেয়ে পড়াশুনা করছে। তাদের খরচই যখন মেটাতে পারিনা। তখন আরো একজনের পড়াশুনার চাপ আমাদের জন্য অনেক কষ্টের ব্যাপার।
হাবিবুর রহমানের এমন কৃতিত্বের ফলাফল জানতে পেরে পাশে এগিয়ে আসেন কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, রাজবাড়ী থেকে প্রকাশিত দৈনিক জনতার আদালত পত্রিকার সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী হক। তিনি আগামী দুটি বছর আলিম পর্যন্ত পড়াশুনার সমস্ত দায়িত্ব নেওয়ার ঘোষনা দিয়েছেন।

নুরে আলম সিদ্দিকী হক বলেন, একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী মেধাবী দরিদ্র ঘরের শিক্ষার্থীর পাশে দাড়াতে তিনি সবসময় সচেষ্ট থাকবেন। হাবিবের দুটি হাত না থাকা সত্বেও সে পা দিয়ে লিখে যে কৃতিত্ব দেখিয়েছে, আমি অভিভূত। আগামী দুটি বছর আলিম পরীক্ষা পর্যন্ত তার পড়াশুনার জন্য যাতে কোন সমস্যা না হয় এজন্য যাবতীয় লেখাপড়ার ব্যায় বহন করবেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102