December 3, 2021, 1:53 am

গোয়ালন্দে এবার কিশোরী করোনায় আক্রান্ত, এ নিয়ে আক্রান্ত সংখ্যা ৭ জন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, মে ১৩, ২০২০
  • 69 Time View
শেয়ার করুনঃ

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে এবার করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছে এক কিশোরী (১৫)। তার বাড়ি ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক সংলগ্ন গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাইনবোড এলাকায়। ৬ মে করোনা পজিটিভ শনাক্ত দৌলতদিয়া ঘাটে বিআইডব্লিউটিসির মেসের সহকারী (বুয়া) মরিয়ম বেগমের প্রতিবেশী ওই কিশোরী। সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ জানান, গত রোববার (১০ মে) মেসের সহকারীর পরিবারসহ আশপাশ এলাকার ১৫ জন এবং অন্যান্য এলাকার আরো ৭ জন মোট ২২ জনের করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। বুধবার সন্ধ্যার আগে ওই কিশোরীর নমুনার প্রতিবেদন পজিটিভ আসে। তাকে সন্ধ্যার পরই রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে গোয়ালন্দ উপজেলায় মোট ৭ জন করোনা পজিটিভ আক্রান্ত হয়েছে। তবে ওই কিশোরীর শরীরে কোন ধরনের করোনার উপসর্গ ছিল না। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে কিশোরীর পরিবারসহ আশপাশের কয়েকটি বাড়ি লকডাউনের জন্য উপজেলা প্রশাসনের কাছে সুপারিশ পাঠিয়েছেন।

এর আগে দৌলতদিয়া ঘাটের আবাসিক মেসে বসবাসরত বিআইডব্লিউটিসির সাত কর্মীর মধ্যে পাঁচ জনই করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। বাকি দুই কর্মী ওই মেসেই এখনো লক ডাউনে রয়েছে। প্রতিদিন উপজেলা প্রশাসন থেকে তাদের খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে। পরবর্তীতে মেসের সহকারী (৪০) ৬ মে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। তিনি বর্তমানে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে রয়েছেন। এ পর্যন্ত মোট ১৩৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। যার মধ্যে ১২৫ জনের করোনা নেগেটিভ ও ৭ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে বুধবার বেলা তিনটার দিকে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট সংলগ্ন শাহাদৎ মেম্বার পাড়ার বৃদ্ধ শুকুর আলী (৭০) করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান। স্থানীয় অনেকে ভয়ে প্রথমে লাশের কাছে ভিড়ছিলনা। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে মৃত শুকুর আলী এবং তাঁর স্ত্রীর স্যাম্পল সংগ্রহ করা হয়। সন্ধ্যার পর উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শে লাশ দাফন করা হয়েছে। মৃত শুকুর আলী মঙ্গলবার কুড়িগ্রামে তার মেয়ে বাড়ি থেকে বেড়ানো শেষ করে নিজ বাড়ি দৌলতদিয়ায় ফিরে আসার পরই তার শরীরে জ¦র, শর্দিসহ উপসর্গ দেখা দেয়। পরদিন বুধবার বেলা তিনটার দিকে তিনি নিজ বাড়িতেই মারা যান।

গত ২৩ মার্চ বিআইডব্লিউটিসির আবাসিক মেসের প্রথম দুই কর্মীর নমুনা সংগ্রহ করলে ২৬ মার্চ দুই জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। তাদের শরীরে সর্দি, জ¦রসহ করোনার উপসর্গ ছিল। ২৭ এপ্রিল তাদের সংস্পর্শে থাকা ১৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলে ৩০ এপ্রিল আরো তিন কর্মীর করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। বাকি দুই কর্মীর নেগেটিভ আসলেও ওই দুই জনকে মেসে লক ডাউন করে রাখা হয়। অবশিষ্ট কর্মী ও বিআইডব্লিউটিসির কাউন্টারে কর্মরত আনসার সদস্য এবং মেসের দুই সহকারীসহ (বুয়া) ১০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা ৩ মে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুবায়েত হায়াত শিপলু রাজবাড়ীমেইলকে বলেন, করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত কিশোরীর পরিবারসহ আশপাশের বাড়িগুলোতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102