০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চিকিৎসক-পুলিশ-জেলা প্রশাসনের মধ্যে দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করলেন অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ শামসুল হক

মইনুল হকঃ অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শামসুল হকের পক্ষ থেকে গত রোববার ও আগের দিন শনিবার সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলামের কাছে পিপিই হস্তান্তর করেন রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. রকিবুল হাসান পিয়াল।

নোভেল করোনা যোদ্ধা, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, চিকিৎসক, পুলিশ বাহিনীর সদস্য, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, সাংবাদিক ও বিভিন্ন পর্যায়ের সমাজকর্মী ও জরুরী সেবায় নিয়োজিত বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীসহ দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করেছেন রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকার্য পরিচালনা সংক্রান্ত কার্যক্রমের সাবেক প্রধান সমন্বয়ক মো. শামসুল হক।

তিনি ঢাকায় জরুরী কাজে অবস্থান করায় গত ৯ ও ১০ই মে তার পক্ষ থেকে রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. রকিবুল হাসান পিয়ালের এসব প্রতিষ্ঠানে পিপিই হস্তান্তর করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রকিবুল হাসান পিয়াল সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলামের কাছে ৩৫টি, পৌর মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরীর কাছে ১৬টি, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ২০টি, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদারের কাছে ৫০টি পিপিই আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন।

এ বিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শামসুল হক বলেন, সারা বিশ্ব এখন নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, এমনকি বাংলাদেশও সেই ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা পায়নি। রাষ্ট্রের এই দুর্যোগময় মুহুর্তে চিকিৎসক, প্রশাসন, পুলিশ বাহিনীর সদস্য ও সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্টরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে মানুষের মধ্যে সচেতনতা চালানো, বিভিন্ন দূর্গম এলাকা সহ ত্রান কার্যক্রম চালাচ্ছে রাজবাড়ীবাসী চিরদিন তা মনে রাখবে।

তিনি বলেন, তাদের কার্যক্রমের শেষ কাতারের দেশের একজন নাগরিক হিসেবে তাদের পাশে থাকার জন্য আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করেছি। এ ছাড়াও চিকিৎসকদের নিরাপত্তার সার্থে ৪০টি এন-৯৫ ফেস মাস্ক ব্যবস্থা করেছি। সেগুলো সিভিল সার্জনের নিকট সরবরাহ করা হবে। ইনশাআল্লাহ্ পরবর্তিতে রাজবাড়ীবাসীর যে কোন দূর্যোগময় মূহুর্তে পাশে থাকব এবং জনগনের সেবা করব।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

চিকিৎসক-পুলিশ-জেলা প্রশাসনের মধ্যে দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করলেন অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ শামসুল হক

পোস্ট হয়েছেঃ ০৯:০৪:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ মে ২০২০

মইনুল হকঃ অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শামসুল হকের পক্ষ থেকে গত রোববার ও আগের দিন শনিবার সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলামের কাছে পিপিই হস্তান্তর করেন রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. রকিবুল হাসান পিয়াল।

নোভেল করোনা যোদ্ধা, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, চিকিৎসক, পুলিশ বাহিনীর সদস্য, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, সাংবাদিক ও বিভিন্ন পর্যায়ের সমাজকর্মী ও জরুরী সেবায় নিয়োজিত বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীসহ দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করেছেন রাজবাড়ীর কৃতি সন্তান অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকার্য পরিচালনা সংক্রান্ত কার্যক্রমের সাবেক প্রধান সমন্বয়ক মো. শামসুল হক।

তিনি ঢাকায় জরুরী কাজে অবস্থান করায় গত ৯ ও ১০ই মে তার পক্ষ থেকে রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. রকিবুল হাসান পিয়ালের এসব প্রতিষ্ঠানে পিপিই হস্তান্তর করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রকিবুল হাসান পিয়াল সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলামের কাছে ৩৫টি, পৌর মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরীর কাছে ১৬টি, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ২০টি, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদারের কাছে ৫০টি পিপিই আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন।

এ বিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শামসুল হক বলেন, সারা বিশ্ব এখন নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, এমনকি বাংলাদেশও সেই ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা পায়নি। রাষ্ট্রের এই দুর্যোগময় মুহুর্তে চিকিৎসক, প্রশাসন, পুলিশ বাহিনীর সদস্য ও সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্টরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে মানুষের মধ্যে সচেতনতা চালানো, বিভিন্ন দূর্গম এলাকা সহ ত্রান কার্যক্রম চালাচ্ছে রাজবাড়ীবাসী চিরদিন তা মনে রাখবে।

তিনি বলেন, তাদের কার্যক্রমের শেষ কাতারের দেশের একজন নাগরিক হিসেবে তাদের পাশে থাকার জন্য আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে দুই শতাধিক পিপিই বিতরণ করেছি। এ ছাড়াও চিকিৎসকদের নিরাপত্তার সার্থে ৪০টি এন-৯৫ ফেস মাস্ক ব্যবস্থা করেছি। সেগুলো সিভিল সার্জনের নিকট সরবরাহ করা হবে। ইনশাআল্লাহ্ পরবর্তিতে রাজবাড়ীবাসীর যে কোন দূর্যোগময় মূহুর্তে পাশে থাকব এবং জনগনের সেবা করব।