০৪:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ী পুলিশ সুপারের উদ্যোগঃ ৫ টাকায় ইফতার

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) পবিত্র মাহে রমজান মাস উপলক্ষ্যে অসহায় মানুষের জন্য নামমাত্র ৫ টাকায় ইফতার সামগ্রীর ব্যবস্থা করায় প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এর আগে পুলিশ সুপার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধের জন্য পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় হাতে তৈরী প্রায় ১০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিনামূল্যে বিতরণ করেন। এটিও জেলাব্যাপী সর্বত্র জেলা পুলিশের জন্য বিশেষ প্রশংসা কুড়িয়েছে।

জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, রাজবাড়ী জেলা শহরে সকল খাবার দোকান বন্ধ। এখন চলছে পবিত্র রমজান মাস। অথচ করোনার কারণে এ বছর ফুটপাতে ইফতারী সামগ্রী বেচাকেনা নিষিদ্ধ রয়েছে। দেশের মানুষকে বাঁিচয়ে রাখার জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পন্যের ট্রাকসহ নানা ধরনের যানবাহন জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পন্য নামিয়ে দিতে আসে। আবার কৃষিপন্য ও খাদ্য শষ্য মফস্বল থেকে রাজধানীসহ বিভিন্ন শহরেও নিয়ে যায়। ওই সকল পণ্যবাহি ট্রাক, গাড়ির চালক, সহকারী বা কোম্পানীর কর্মচারী, ব্যবসায়ী রোজা রাখেন। তারা ইফতারীর সময় রাজবাড়ী শহরে এসে মহা বিপাকে পড়ে যান। তারা না পারেন কোন দোকান থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে, না পারেন অনাহুত কোন বাসা-বাড়িতে গিয়ে ইফতারী চাইতে। ইফতারীর সময়ে আটকে পড়া এমন মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য এগিয়ে এসেছে রাজবাড়ী জেলা পুলিশ।

পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) বলেন, এমন মানুষের সম্ভ্রমে যাতে আঘাত না লাগে, সে জন্য একেবারে ফ্রি নয়, নামমাত্র মূল্যে মাত্র ৫ টাকায় পুলিশের উদ্যোগে রাজবাড়ী বাজারে ইফতারী বিক্রয় কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। আমাদের জেলা পুলিশের এই উদ্যোগের সাথে যোগ দিয়েছেন কবি নেহাল আহম্মেদ। তাঁর নেতৃত্বে রাজবাড়ীর কিছু মানবতা কর্মী স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছেন। যে কোনভাবেই হোক, মানুষের পাশে থাকতে চায় রাজবাড়ী জেলা পুলিশ।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

রাজবাড়ী‌তে হে‌ভি‌য়েট দুই প্রার্থী ইমদাদ বিশ্বাস ও নুরে আলম সিদ্দিকী সহ ৫ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ম‌নোনয়ন পত্র বা‌তিল

রাজবাড়ী পুলিশ সুপারের উদ্যোগঃ ৫ টাকায় ইফতার

পোস্ট হয়েছেঃ ০৮:১০:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২০

রাজবাড়ীমেইল ডেস্কঃ রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) পবিত্র মাহে রমজান মাস উপলক্ষ্যে অসহায় মানুষের জন্য নামমাত্র ৫ টাকায় ইফতার সামগ্রীর ব্যবস্থা করায় প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এর আগে পুলিশ সুপার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধের জন্য পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় হাতে তৈরী প্রায় ১০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিনামূল্যে বিতরণ করেন। এটিও জেলাব্যাপী সর্বত্র জেলা পুলিশের জন্য বিশেষ প্রশংসা কুড়িয়েছে।

জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, রাজবাড়ী জেলা শহরে সকল খাবার দোকান বন্ধ। এখন চলছে পবিত্র রমজান মাস। অথচ করোনার কারণে এ বছর ফুটপাতে ইফতারী সামগ্রী বেচাকেনা নিষিদ্ধ রয়েছে। দেশের মানুষকে বাঁিচয়ে রাখার জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পন্যের ট্রাকসহ নানা ধরনের যানবাহন জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পন্য নামিয়ে দিতে আসে। আবার কৃষিপন্য ও খাদ্য শষ্য মফস্বল থেকে রাজধানীসহ বিভিন্ন শহরেও নিয়ে যায়। ওই সকল পণ্যবাহি ট্রাক, গাড়ির চালক, সহকারী বা কোম্পানীর কর্মচারী, ব্যবসায়ী রোজা রাখেন। তারা ইফতারীর সময় রাজবাড়ী শহরে এসে মহা বিপাকে পড়ে যান। তারা না পারেন কোন দোকান থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে, না পারেন অনাহুত কোন বাসা-বাড়িতে গিয়ে ইফতারী চাইতে। ইফতারীর সময়ে আটকে পড়া এমন মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য এগিয়ে এসেছে রাজবাড়ী জেলা পুলিশ।

পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) বলেন, এমন মানুষের সম্ভ্রমে যাতে আঘাত না লাগে, সে জন্য একেবারে ফ্রি নয়, নামমাত্র মূল্যে মাত্র ৫ টাকায় পুলিশের উদ্যোগে রাজবাড়ী বাজারে ইফতারী বিক্রয় কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। আমাদের জেলা পুলিশের এই উদ্যোগের সাথে যোগ দিয়েছেন কবি নেহাল আহম্মেদ। তাঁর নেতৃত্বে রাজবাড়ীর কিছু মানবতা কর্মী স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছেন। যে কোনভাবেই হোক, মানুষের পাশে থাকতে চায় রাজবাড়ী জেলা পুলিশ।