০১:৪৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক: ঠিকমত সেবা না পাওয়ার অভিযোগ

এমু হোসেনঃ রাজবাড়ী জেলায় প্রায় ১২লাখ মানুষের বসবাস। জেলার মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসে সবচেয়ে বেশি। এমনিতে এই হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিয়ে রয়েছে রোগীদের নানা অভিযোগ। তারপর করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সদর হাসপাতালসহ অন্যান্য উপজেলা হাসপাতাল থেকে ঠিকমত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না বলে অভিযোগ অভিযোগ রয়েছে। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারনে চিকিৎসকরা নিরাপদ থাকতে রোগীদের ঠিকভাবে সেবা দিচ্ছেনা বলে রোগীদের অভিযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আক্কাস সরদার নামে একজন সবজি বিক্রেতা ঠান্ড, জ্বর ও শরীর ব্যাথা নিয়ে অসুস্থ্য হয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক দেখে তার নিউমোনিয়া হয়েছে। করোনা আতঙ্কে তাকে দ্রুত ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। কিন্তু ঢাকায় চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে না পারায় তাকে রাজবাড়ীতে ফিরে আসলে পথিমধ্যে রোগী মারা যায়। কিন্তু মৃত রোগীটি করানা ভাইরাসের কারনে মৃত্যু হয়েছে কিনা এ কারনে আতঙ্কে রয়েছে তার পরিবার।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসা সাধারন মানুষ ও রোগীরা বলছেন, করোনা ভাইরাসের কারনে ডাক্তাররা এখন রোগীদের ঠিকমত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেনা। অনেক ডাক্তাররা হাসপাতালে ঠিকমত আসছেনও না। আর একটু জ্বর, কাশি ও ঠান্ডা জনিত উপসর্গ থাকলে সেই রোগীকে কোন ঠাক্তার ভালোমত দেখছেন নান বলে অিেভযোগ করেন রোগীরা।

অন্য আরেক রোগী বলেন, আইইডিসিআরের যে পরিক্ষার পদ্ধতি ঢাকায় গীয়ে কেন করতে হবে? প্রতিটি জেলায় কেন পরিক্ষা করা হয়না। এখানে কোন ট্রিটমেন্ট পাচ্ছেননা, তারা হেনস্থা হচ্ছেন বলেন। তারা চান করোনা ভাইরাস টেস্ট যেন রাজবাড়ী সহ প্রতিটি জেলায় করা হয় এজন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান। আবার সাধারণত ৪ থেকে ৫ ধরনের ঔষুধ ছাড়া ভালো কোন ঔষধ দেওয়া হয়না বলে জানান রোগীরা।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা তামান্না রহমান বলেন, নিজেরা রিস্ক নিয়েও রোগীদের সার্ভিস ও চিকিৎসা দিচ্ছেন। তাদের বিভিন্ন ধরনের প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্টের ব্যাপারে যদি সরকার ও কতৃপক্ষ দেখে তাহলে তারা আরো ভালোভাবে চিকিৎসা দিতে পারবেন। করোনা ভাইরাসের কারনে যে রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেননা তা নয়। কারন তারাতো সহযোগীতার জন্যে আসছেন। তবে করোনা ভাইরাসের এ সময় সবাই যেন সতর্ক থাকেন সেদিকে খেয়াল রাখতে সবাইকে অনুরোধ জানান এই চিকিৎসক।

হাসপাতালের তত্বাবধায়ক দিপক কুমার বিশ^াস বলেন, মঙ্গলবার সকালে একজন সবজি বিক্রেতা ঠান্ডা জনিত অসুস্থ্যতা নিয়ে সদর হাসপাতালে আসে, তখন কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দেখে নিউমোনিয়া হয়েছে বলেন। তৎক্ষনাৎ অবস্থার অবনতি এবং শ্বাসকষ্ট দেখে করোনা আতঙ্কে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকা থেকে কোন হাসপাতাল তাকে ভর্তি না রেখে রাজবাড়ী ফেরত আসার পথে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় এসে মারা যায়। তবে তিনি বলেন, রোগীটির কোন করোনা ভাইরাস হয়নি বলে জানান। সে আগে যক্ষ্মা সহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

রাজবাড়ীতে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক: ঠিকমত সেবা না পাওয়ার অভিযোগ

পোস্ট হয়েছেঃ ০৫:৫৫:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০

এমু হোসেনঃ রাজবাড়ী জেলায় প্রায় ১২লাখ মানুষের বসবাস। জেলার মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসে সবচেয়ে বেশি। এমনিতে এই হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিয়ে রয়েছে রোগীদের নানা অভিযোগ। তারপর করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সদর হাসপাতালসহ অন্যান্য উপজেলা হাসপাতাল থেকে ঠিকমত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না বলে অভিযোগ অভিযোগ রয়েছে। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারনে চিকিৎসকরা নিরাপদ থাকতে রোগীদের ঠিকভাবে সেবা দিচ্ছেনা বলে রোগীদের অভিযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আক্কাস সরদার নামে একজন সবজি বিক্রেতা ঠান্ড, জ্বর ও শরীর ব্যাথা নিয়ে অসুস্থ্য হয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক দেখে তার নিউমোনিয়া হয়েছে। করোনা আতঙ্কে তাকে দ্রুত ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। কিন্তু ঢাকায় চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে না পারায় তাকে রাজবাড়ীতে ফিরে আসলে পথিমধ্যে রোগী মারা যায়। কিন্তু মৃত রোগীটি করানা ভাইরাসের কারনে মৃত্যু হয়েছে কিনা এ কারনে আতঙ্কে রয়েছে তার পরিবার।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে আসা সাধারন মানুষ ও রোগীরা বলছেন, করোনা ভাইরাসের কারনে ডাক্তাররা এখন রোগীদের ঠিকমত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেনা। অনেক ডাক্তাররা হাসপাতালে ঠিকমত আসছেনও না। আর একটু জ্বর, কাশি ও ঠান্ডা জনিত উপসর্গ থাকলে সেই রোগীকে কোন ঠাক্তার ভালোমত দেখছেন নান বলে অিেভযোগ করেন রোগীরা।

অন্য আরেক রোগী বলেন, আইইডিসিআরের যে পরিক্ষার পদ্ধতি ঢাকায় গীয়ে কেন করতে হবে? প্রতিটি জেলায় কেন পরিক্ষা করা হয়না। এখানে কোন ট্রিটমেন্ট পাচ্ছেননা, তারা হেনস্থা হচ্ছেন বলেন। তারা চান করোনা ভাইরাস টেস্ট যেন রাজবাড়ী সহ প্রতিটি জেলায় করা হয় এজন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান। আবার সাধারণত ৪ থেকে ৫ ধরনের ঔষুধ ছাড়া ভালো কোন ঔষধ দেওয়া হয়না বলে জানান রোগীরা।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা তামান্না রহমান বলেন, নিজেরা রিস্ক নিয়েও রোগীদের সার্ভিস ও চিকিৎসা দিচ্ছেন। তাদের বিভিন্ন ধরনের প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্টের ব্যাপারে যদি সরকার ও কতৃপক্ষ দেখে তাহলে তারা আরো ভালোভাবে চিকিৎসা দিতে পারবেন। করোনা ভাইরাসের কারনে যে রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেননা তা নয়। কারন তারাতো সহযোগীতার জন্যে আসছেন। তবে করোনা ভাইরাসের এ সময় সবাই যেন সতর্ক থাকেন সেদিকে খেয়াল রাখতে সবাইকে অনুরোধ জানান এই চিকিৎসক।

হাসপাতালের তত্বাবধায়ক দিপক কুমার বিশ^াস বলেন, মঙ্গলবার সকালে একজন সবজি বিক্রেতা ঠান্ডা জনিত অসুস্থ্যতা নিয়ে সদর হাসপাতালে আসে, তখন কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দেখে নিউমোনিয়া হয়েছে বলেন। তৎক্ষনাৎ অবস্থার অবনতি এবং শ্বাসকষ্ট দেখে করোনা আতঙ্কে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকা থেকে কোন হাসপাতাল তাকে ভর্তি না রেখে রাজবাড়ী ফেরত আসার পথে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় এসে মারা যায়। তবে তিনি বলেন, রোগীটির কোন করোনা ভাইরাস হয়নি বলে জানান। সে আগে যক্ষ্মা সহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।