১২:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

করোনা পরিস্থিতিতে ফরিদপুরে চলছে চিকিৎসক সংকট: উত্তরণে জরুরী সভা করলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন এমপি

মাহবুব হোসেন পিয়াল, ফরিদপুরঃ
গত কয়েকদিন যাবত ফরিদপুরের হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক গুলোতে চলছে চরম চিকিৎসক সংকট। আর এই চিকিৎসক সংকটের কারনে সাধারন রোগিরা চিকিৎসা সেবা না পেয়ে মারাত্মক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক গুলোতে এসে। এই বিষয়টি কয়েকদিন যাবত ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয় জেলায়।

এমন উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জেলার সরকারী হাসপাতালের প্রধানদের নিয়ে জরুরী সভা করলেন সাবেক মন্ত্রী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য, এলজিআরডি সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেন এমপি।
সোমবার (৩০ মার্চ) বিকাল ৫টার সময় ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ফরিদপুর জেলা করোনা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর জেলা করোনা কমিটির উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি।

এ সময় ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি তাঁর বক্তব্য বলেন, দেশ এখন একটি দূর্যোগময় পরিস্থিতি অতিক্রম করছে। এমন সময়ে আপনারা চিকিৎসকরা যে ওয়াদা বদ্ধ দেশ ও জাতির কাছে সেটা পালন করুন। তিনি বলেন, আপনারা নির্দেশ দেন কিভাবে রোগিকে আপনাদের সামনে হাজির করতে হবে। আমরা সেভাবে রোগিকে আপনাদের কাছে পাঠাবো। কিন্তু আপনারা সেই দায়িত্ব পালন না করে সংক্রমণের ভয়ে চিকিৎসা সেবা থেকে দূরে থাকেন তাহলে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করার কোন উপায় আমাদের কাছে আর থাকবে না। তিনি বলেন, আপনারা আসুন আমরা একযোগে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করি। এখন থেকে আপনাদের যে দায়িত্ব সেটা সঠিক ভাবে পালন করুন।

সভায় পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান, সিভিল সার্জন ডা. মো. ছিদ্দিকুর রহমান, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. সাইফুর রহমান, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ এর অধ্যক্ষ ডা. খবিরুল ইসলাম, বিএমএ এর সভাপতি ও ডায়বেটিক হাসপাতাল সমিতির সাধারন সম্পাদক ডা. আসম জাহাঙ্গীর চৌধুরী টিটো, ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো. মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মানিক কুমার রায়, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাসুম রেজা, জেলা যুবলীগের আহবায়ক এইচ এম ফুয়াদ, শহর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক চৌধুরী বরকত ইবনে সালাম, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হাসান রুবেলসহ জেলার প্রধান প্রধান অফিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ফরিদপুরের সরকারী হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক এর চিকিৎসকরা হাসপাতালে যাচ্ছেন না ভয়ে। এছাড়া নোটিশ টানিয়ে দিয়ে প্রাইভেট কিøনিক এর কিছু কিছু চিকিৎসকরা চিকিৎসা সেবা বন্ধ রেখে আত্মগোপন করে রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

করোনা পরিস্থিতিতে ফরিদপুরে চলছে চিকিৎসক সংকট: উত্তরণে জরুরী সভা করলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন এমপি

পোস্ট হয়েছেঃ ০৮:০৫:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০

মাহবুব হোসেন পিয়াল, ফরিদপুরঃ
গত কয়েকদিন যাবত ফরিদপুরের হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক গুলোতে চলছে চরম চিকিৎসক সংকট। আর এই চিকিৎসক সংকটের কারনে সাধারন রোগিরা চিকিৎসা সেবা না পেয়ে মারাত্মক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক গুলোতে এসে। এই বিষয়টি কয়েকদিন যাবত ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয় জেলায়।

এমন উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জেলার সরকারী হাসপাতালের প্রধানদের নিয়ে জরুরী সভা করলেন সাবেক মন্ত্রী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য, এলজিআরডি সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেন এমপি।
সোমবার (৩০ মার্চ) বিকাল ৫টার সময় ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ফরিদপুর জেলা করোনা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর জেলা করোনা কমিটির উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি।

এ সময় ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি তাঁর বক্তব্য বলেন, দেশ এখন একটি দূর্যোগময় পরিস্থিতি অতিক্রম করছে। এমন সময়ে আপনারা চিকিৎসকরা যে ওয়াদা বদ্ধ দেশ ও জাতির কাছে সেটা পালন করুন। তিনি বলেন, আপনারা নির্দেশ দেন কিভাবে রোগিকে আপনাদের সামনে হাজির করতে হবে। আমরা সেভাবে রোগিকে আপনাদের কাছে পাঠাবো। কিন্তু আপনারা সেই দায়িত্ব পালন না করে সংক্রমণের ভয়ে চিকিৎসা সেবা থেকে দূরে থাকেন তাহলে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করার কোন উপায় আমাদের কাছে আর থাকবে না। তিনি বলেন, আপনারা আসুন আমরা একযোগে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করি। এখন থেকে আপনাদের যে দায়িত্ব সেটা সঠিক ভাবে পালন করুন।

সভায় পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান, সিভিল সার্জন ডা. মো. ছিদ্দিকুর রহমান, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. সাইফুর রহমান, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ এর অধ্যক্ষ ডা. খবিরুল ইসলাম, বিএমএ এর সভাপতি ও ডায়বেটিক হাসপাতাল সমিতির সাধারন সম্পাদক ডা. আসম জাহাঙ্গীর চৌধুরী টিটো, ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো. মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মানিক কুমার রায়, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাসুম রেজা, জেলা যুবলীগের আহবায়ক এইচ এম ফুয়াদ, শহর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক চৌধুরী বরকত ইবনে সালাম, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হাসান রুবেলসহ জেলার প্রধান প্রধান অফিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ফরিদপুরের সরকারী হাসপাতাল ও প্রাইভেট কিøনিক এর চিকিৎসকরা হাসপাতালে যাচ্ছেন না ভয়ে। এছাড়া নোটিশ টানিয়ে দিয়ে প্রাইভেট কিøনিক এর কিছু কিছু চিকিৎসকরা চিকিৎসা সেবা বন্ধ রেখে আত্মগোপন করে রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।