September 17, 2021, 6:40 am
Title :
রাজবাড়ীতে নদী তীর সংরক্ষণ কাজের ৫০ মিটার সিসি ব্লক বিলীন দৌলতদিয়া ঘাটে ওরস ফেরত গাড়ির চাপে লম্বা লাইন, দুর্ভোগ রাজবাড়ীতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযান, মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে মাটি খনন করায় ঝুঁকিতে রাস্তা-বসতভিটা বালিয়াকান্দিতে ইয়াবাবড়ি ও টাকা সহ দুই তরুণ গ্রেপ্তার মাঝ রাতে বিয়ে করলেন চিত্র নায়িকা মাহিয়া মাহি রাজবাড়ীতে হেরোইনসহ ট্রেন যাত্রী গ্রেপ্তার আইন শৃঙ্খলা সভাঃ “আমার ছেলে মদ-ই খেয়েছে, ডাকাতি তো করেনি”! দৌলতদিয়ায় মদ খেয়ে মাতলামী, ১১ মামলার আসামীসহ গ্রেপ্তার ৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রাণ ফিরে এসেছে, স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

দৌলতদিয়া ঘাট ফাকা, সারিবদ্ধ বসে আছে ফেরি

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০
  • 27 Time View
শেয়ার করুনঃ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ করোনাভাইরাসের প্রভাবে সারাদেশের গণ পরিবহনসহ সাধারণ পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশে অন্যতম রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট ফাঁকা পড়ে আছে। অথচ কয়েকদিন আগেও এ ঘাট দিয়ে পরিবহন ও মানুষের কলাহলে সব সময় মুখোর থাকতো। এখন যানবাহন না থাকায় ঘাটে সারিবদ্ধভাবে দাড়িয়ে রয়েছে ছোট-বড় ফেরিগুলো।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয় জানায়, রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে প্রতিদিন ছোট-বড় মিলে ১৪টি ফেরি চলাচল করছিল। করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষায় গত ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে পরিবহন চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়। গাড়ি বন্ধ থাকায় ওই দিন থেকে এই নৌপথে মাত্র ৪-৫টি ছোট ফেরি চলাচল করছে। বাকি সবকটি ফেরি দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে নোঙর করে রাখা হয়েছে।

সরেজমিন দেখা যায়, দৌলতদিয়ার সবকটি ঘাটে সারিবদ্ধভাবে ফেরিগুলো বসিয়ে রাখা হয়েছে। কেউ কেউ ফেরির ভিতর বসে পরিস্কারের কাজ করছেন। কেউ বা নদীর পাড়ে বসে আড্ডা দিয়ে অলস সময় পার করছেন। মাঝে মধ্যে জরুরী পণ্যবাহি বা রোগীবাহি এ্যাম্বুলেন্স আসলে তা নিয়ে ঘাট ছেড়ে যাচ্ছে ফেরি। এছাড়া ফেরি ঘাট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক ফাঁকা পড়ে আছে। কোথাও কোন গাড়ি নেই। শুধুমাত্র কিছু ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ও কিছু পা চালিত রিক্সা চলাচল করতে দেখা যায়। মাঝে মধ্যে কিছু জরুরী পণ্যবাহি গাড়ি আসতে দেখা যায়।

যশোর থেকে আসা কাঁচা পণ্যের ট্রাক চালক আনোয়ার হোসেন বলেন, সারাদেশে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ রয়েছে। শুধুমাত্র কাঁচা সবজির গাড়ি ও সাথে ওষুধসহ অন্যান্য জরুরী গাড়ি পার হচ্ছে। মাত্র তিন ঘন্টায় এক টানে গাড়ি নিয়ে দৌলতদিয়ায় চলে আসলাম। পুরো রাস্তা ফাঁকা। মাঝেমধ্যে রাস্তায় কিছু পুলিশ থাকলেও সন্দেহ হলে সবজির গাড়ি নিশ্চিত হয়ে পড়ে ছেড়ে দিচ্ছে। করোনাভাইরাস নিয়ে একদিকে মনে ভয় ও আতঙ্ক কাজ করছে। অন্যদিকে না চললে খাব কি করে? ভাড়া একটু বেশি পাচ্ছি তাই ঝুকি মনে করেও ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছি।

 


নদী পাড়ি দিয়ে আসা এনামুল হক নামের এক তরুণ বলেন, মানিকগঞ্জ থেকে ফরিদপুর যাব। নিকট এক আত্মীয়ের বাড়ি যেতে হবে। অনেক কষ্টে অটোরিক্সায় করে পাটুরিয়ায় পৌছলেও ফেরি সহজে ফেরি না ছাড়ায় দীর্ঘ সময় ঘাটেই বসে থাকতে হয়। কিন্তু এখন তো পরছি আরেক বিপদে। দৌলতদিয়ায় এসে দেখি কোন গাড়ি নাই। তাই সুযোগ পেলে কোন ট্রাক বা বিকল্প গাড়িতে ওঠবো নতুবা অটোরিক্সায় করে ফরিদপুর যাবার চেষ্টা করবো।

চার নম্বর ঘাটে ছোট ফেরির পন্টুনের ইনচার্জ মো. ইসমাঈল বলেন, “ভাই সবাই ছুটি ভোগ করছে। হোম কোয়ারিন্টেনে রয়েছে। আমাদের ছুটিও নাই, হোম কোয়ারিন্টেনও নাই। ছুটির জন্য আবেদন করলেও মঞ্জুর হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আমাদের এখনো ডিউটি করতে হচ্ছে।”

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ বলেন, আগে যেখানে গড়ে প্রতিদিন ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার গাড়ি নদী পাড়ি দিত। এরমধ্যে নিয়মিত প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ কাঁচা পণ্যের ছোট ট্রাক চলাচল করতো। বর্তমানে ওই সব কাঁচা পণ্যের গাড়িসহ অন্যান্য জরুরী বা ব্যক্তিগত গাড়ি মিলে গড়ে প্রায় এক হাজারের মতো গাড়ি পার হচ্ছে। যে কারণে সকল বড় ফেরি বসিয়ে রাখা হয়েছে। শুধুমাত্র ইউটিলিটি (ছোট) চালু রাখা হয়েছে। এ ছাড়া সারাদেশে লকডাউনের কারণে আমরা সবাই নিজ নিজ স্থানে অবস্থান করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102