December 4, 2022, 4:09 am

গোয়ালন্দে যৌতুক না পেয়ে মারপিট, জামাইয়ের হাতে দুই শ্যালক আহত

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, মার্চ ২৯, ২০২০
  • 105 Time View
শেয়ার করুনঃ

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে ফুসলিয়ে বিয়ে করার কয়েকদিন পর বাড়ি ফিরে নতুন শ^শুর বাড়িতে যৌতুক চেয়ে না পেয়ে শ^শুর বাড়ির লোকজনকে মারধর করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার রাতে গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের হাজী গফুর মন্ডল পাড়ায়। এ ঘটনায় আহত দুই জনকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ থেকে জানা যায়, পূর্ব উজানচর হাজী গফুর মন্ডল পাড়ার বাসিন্দা সৌদি আরব প্রবাসী আকমল শেখ এর মেয়ে বৃষ্টি আক্তারকে (১৮) প্রায় ২০ দিন আগে একই গ্রামের ইদ্রিস শেখের ছোট ছেলে সুমন শেখ (২১) ফুসলিয়ে ঢাকায় নিয়ে বিয়ে করে। এ বিয়েতে কেউ রাজি না থাকায় সবার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। বিয়ের কিছুদিন পর চাচা কুদ্দুস শেখ এর বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়।

এর কয়েকদিন পর সুমনের নিকট আত্মীয় মতি শেখ আকমল সৌদি আরব থাকায় তার স্ত্রী আছমা বেগমের কাছে “মেয়ে দিতে গেলে অনেক টাকা যৌতুক দিতে হয়, স্বর্ণালংকারসহ ২-৩ লাখ টাকা খরচ হতো” এ কথা বলে যৌতুক দাবী করেন। এ ধরনের কোন টাকা পয়সা দিতে পারবে না বলে সাফ জানিয়ে দিলে উভয়ের মধ্যে এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়। পরবর্তীতে মতি শেখ খবর দিলে জামাই সুমনসহ তার বড় ভাই সুজন, বাবা ইদ্রিস শেখসহ কয়েকজন এগিয়ে আসলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে বাড়ি সংলগ্ন পল্লী বাজারে সংঘর্ষ বেধে যায়। মেয়ে জামাই সুমনসহ তাদের লোকজনের আক্রমণে আকমলের ছেলে আজিবুর ও ভাই মোসলেম শেখের ছেলে আসাদ গুরুতর আহত হন। তাদেরকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। এসময় আকমলের স্ত্রীর গলায় থাকা একটি স্বর্ণের চেইন ও আসাদের পকেটে থাকা ব্যবসার নগদ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

আকমলের স্ত্রী আছমা বেগম জানান, অনেক আগে থেকেই আমার মেয়ে বৃষ্টি আক্তারকে (১৮) প্রায় উত্যক্ত করতো ইদ্রিস শেখ এর ছেলে সুমন। তারা বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমরা ফিরিয়ে দেই। এ নিয়ে পরে ফন্দি এটে কৌশলে ফুসলিয়ে আমার মেয়েকে ঢাকা নিয়ে বিয়ে করে। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে দিলে ২-৩ লাখ টাকা খরচ হতো বলে যৌতুক দাবী করে। তাতে রাজি হয়নি বলে আমাদের ওপর হামলা চালায়। পরদিন শনিবার থানায় তিনি নিজে (আছমা বেগম) বাদী হয়ে নতুন জামাই সমুন শেখসহ পাঁচ জনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা (নং-২৬) দায়ের করেছি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান বলেন, নতুন মেয়ে জামাইসহ তাদের পরিবার শ^শুর বাড়ির লোকজনের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় শ^াশুড়ি আছমা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার পর থেকে জামাই সুমনসহ সবাই পলাতক থাকায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102