০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে ফুপুবাড়ি বেড়াতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চর বালিয়াকান্দি গ্রামে ফুপু বাড়ি বেড়াতে এসে লামিয়া আক্তার (১০) নামে এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে। সে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের লাল চাঁদের মেয়ে। গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিসের দল শুক্রবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয় স্কুল শিক্ষক তুষার বিশ্বাসসহ এলাকার কয়েকজন জানান, শিশু লামিয়া আমাদের গ্রামে তার নানা সোহরাব মাতব্বরের বাড়িতে শুক্রবার সকালে বেড়াতে আসে। দুপুর ১টার দিকে বাড়ির লোকজন লামিয়াকে খোজাঁখুজি করেও পায়নি। বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে যেতে পারে এ আশঙ্কায় গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে খবর দিলে তারা উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশন এর ষ্টেশন মাষ্টার আব্দুর রহমান রাজবাড়ীমেইলকে জানান, দুপুরে শিশুটি সোহরাব মাতুব্বরের বাড়ির পাশের পুকুরে গোছল করতে নেমে নিখোঁজ হয়। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজ করে না পেয়ে অবশেষে আমাদের জানালে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার অভিযান শুরু করি। অভিযানকালে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

গোয়ালন্দে ফুপুবাড়ি বেড়াতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

পোস্ট হয়েছেঃ ০৪:১৬:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চর বালিয়াকান্দি গ্রামে ফুপু বাড়ি বেড়াতে এসে লামিয়া আক্তার (১০) নামে এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে। সে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের লাল চাঁদের মেয়ে। গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিসের দল শুক্রবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয় স্কুল শিক্ষক তুষার বিশ্বাসসহ এলাকার কয়েকজন জানান, শিশু লামিয়া আমাদের গ্রামে তার নানা সোহরাব মাতব্বরের বাড়িতে শুক্রবার সকালে বেড়াতে আসে। দুপুর ১টার দিকে বাড়ির লোকজন লামিয়াকে খোজাঁখুজি করেও পায়নি। বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে যেতে পারে এ আশঙ্কায় গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে খবর দিলে তারা উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশন এর ষ্টেশন মাষ্টার আব্দুর রহমান রাজবাড়ীমেইলকে জানান, দুপুরে শিশুটি সোহরাব মাতুব্বরের বাড়ির পাশের পুকুরে গোছল করতে নেমে নিখোঁজ হয়। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজ করে না পেয়ে অবশেষে আমাদের জানালে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার অভিযান শুরু করি। অভিযানকালে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।