০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সৌরভের উপর চটেছে মমতা

14প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত পুরো বিশ্ব। বিশ্বের প্রতিটি সেক্টরে করোনার প্রভাব লক্ষ করা গেছে। বিভিন্ন দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে অফিস আদালত পর্যন্ত সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার প্রভাব বিস্তার করেছে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনেও। বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট ও ফুটবল টুর্নামেন্টগুলোও অনির্দিষ্টকালের জন্য বাতিল করা হয়েছে। শনিবার (১৩ মার্চ) সকাল পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ। করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, ভারতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস নিয়ে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রণালয় জাতীয় ক্রীড়া সংস্থাগুলোকে যাবতীয় খেলাধুলার আসর আপাতত স্থগিত রাখার পরামর্শ দিয়েছে।

স্টেডিয়ামে দর্শক সমাগমে করোনা ভাইরাস সংক্রমেণর আশঙ্কা থাকায় বিসিসিআই প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ান ডে সিরিজের বাকি দুটি ম্যাচ ফাঁকা গ্যালারিতে অয়োজন করা হবে। সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ওয়ান ডে ম্যাচ আয়োজন করার কথা ছিল ইডেন গার্ডেন্সে। রাজ্যের ক্রীড়া সংস্থাগুলোর প্রতিনিধি ও ক্লাব কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের মাঝেই মুখ্যমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিসিসিআই-এর সিদ্ধান্ত নিয়ে। সরাসরি ক্ষোভ প্রকাশ না করলেও মমতা বন্দোপাধ্যায় স্পষ্ট বুঝিয়ে দিলেন যে খুশি নন তিনি। অসন্তোষ চেপে না রেখে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর গলায় অভিযোগের সুর, ‘সৌরভের উচিত ছিল অন্তত আমার সঙ্গে একবার আলোচনা করে নেওয়া।’ এমন সংকটজনক অবস্থায় কলকাতায় ম্যাচ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিলেও রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেনি ভারতীয় বোর্ড। যদিও সিএবির সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া এ বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন মুখ্য সচিবের সঙ্গে। মুখ্যমন্ত্রী ভারতীয় বোর্ডের প্রতি নিজের আস্থা বজায় রেখেই বলেন যে, এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যে যখন ম্যাচ আয়োজন করা হচ্ছে, তখন কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করতে পারত বোর্ড।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

সৌরভের উপর চটেছে মমতা

পোস্ট হয়েছেঃ ০৪:৪৩:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ মার্চ ২০২০

14প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত পুরো বিশ্ব। বিশ্বের প্রতিটি সেক্টরে করোনার প্রভাব লক্ষ করা গেছে। বিভিন্ন দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে অফিস আদালত পর্যন্ত সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার প্রভাব বিস্তার করেছে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনেও। বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট ও ফুটবল টুর্নামেন্টগুলোও অনির্দিষ্টকালের জন্য বাতিল করা হয়েছে। শনিবার (১৩ মার্চ) সকাল পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ। করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, ভারতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস নিয়ে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রণালয় জাতীয় ক্রীড়া সংস্থাগুলোকে যাবতীয় খেলাধুলার আসর আপাতত স্থগিত রাখার পরামর্শ দিয়েছে।

স্টেডিয়ামে দর্শক সমাগমে করোনা ভাইরাস সংক্রমেণর আশঙ্কা থাকায় বিসিসিআই প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ান ডে সিরিজের বাকি দুটি ম্যাচ ফাঁকা গ্যালারিতে অয়োজন করা হবে। সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ওয়ান ডে ম্যাচ আয়োজন করার কথা ছিল ইডেন গার্ডেন্সে। রাজ্যের ক্রীড়া সংস্থাগুলোর প্রতিনিধি ও ক্লাব কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের মাঝেই মুখ্যমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিসিসিআই-এর সিদ্ধান্ত নিয়ে। সরাসরি ক্ষোভ প্রকাশ না করলেও মমতা বন্দোপাধ্যায় স্পষ্ট বুঝিয়ে দিলেন যে খুশি নন তিনি। অসন্তোষ চেপে না রেখে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর গলায় অভিযোগের সুর, ‘সৌরভের উচিত ছিল অন্তত আমার সঙ্গে একবার আলোচনা করে নেওয়া।’ এমন সংকটজনক অবস্থায় কলকাতায় ম্যাচ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিলেও রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেনি ভারতীয় বোর্ড। যদিও সিএবির সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া এ বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন মুখ্য সচিবের সঙ্গে। মুখ্যমন্ত্রী ভারতীয় বোর্ডের প্রতি নিজের আস্থা বজায় রেখেই বলেন যে, এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যে যখন ম্যাচ আয়োজন করা হচ্ছে, তখন কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করতে পারত বোর্ড।