December 8, 2022, 9:33 am
শিরোনামঃ
রাজবাড়ী সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তার চেয়ার দাবীদার দুই কর্মকর্তা! বালিয়াকান্দিতে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে দুই দিন ব্যাপি তথ্য মেলা উদ্বোধন গোয়ালন্দে প্রতিবন্ধীদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ সামগ্রী বিতরণ দৌলতদিয়া বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের দপ্তর সম্পাদক হলেন সাংবাদিক শেখ রাজীব চার গ্রামের মানুষের চলাচলের একমাত্র ভরসা নড়বড়ে বাশের সাঁকো বালিয়াকান্দিতে কাঠ পোড়ানোর দায়ে দুই ইটভাটা মালিককে জরিমানা-মামলা পাংশায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে বিএনপির ১৩ নেতাকর্মীর নামে থানায় মামলা বালিয়াকান্দিতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার আ.লীগ ও বিএনপি ৩২ বছর ধরে লুটপাট করছে -রাজবাড়ীতে মুজিবুল হক চুন্নু

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে গোয়ালন্দে বড় ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, মুমর্ষ অবস্থায় ছোট ভাই

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, নভেম্বর ৪, ২০২২
  • 71 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মো. মজনু শেখ (৪২) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। হামলায় আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। মজনু শেখ গোয়ালন্দ উপজেলা নাসের মাতুব্বর পাড়ার আকবর আলী শেখ এর ছেলে।

তার আগে বৃহস্পতিবার সকালে জমি চাষাবাদকালে হামলার ঘটনা ঘটে। এছাড়া মুমর্ষ অবস্থায় ঢাকায় চিকিৎসাধীন আছেন মজনুর ছোট ভাই নজরুল ইসলাম শেখ (৩০)। বাবা আকবর আলী শেখকেও (৬৫) মারধর করে আহত করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৭ বছর আগে প্রতিবেশী লালন দেওয়ানের কাছ থেকে কৃষক আকবর আলী শেখ বাড়ির পিছন থেকে এক বিঘা কৃষি জমি ক্রয় করেন। এরপর ওই জমির দখল বুঝিয়ে দিতে লালন দেওয়ানকে তাগিদ দেন। দখল বুঝিয়ে না দিয়ে বরং জমি ক্রয় করায় লালন দেওয়ানের ভাই তারা দেওয়ানের সাথে মত বিরোধ দেখা দেয়। তারা দেওয়ানের ছেলে লতিফ দেওয়ানের সাথে ঝগড়া বিবাদ দেখা দেয়।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) সকালে পেয়াঁজ রোপন করবেন বলে মজনু ও নজরুলকে বাড়ির পিছনে কৃষি জমি আবাদ করছিলেন আকবর শেখ। তারা দেওয়ানের জমির কিছু ভেঙে যায় বলে তার ছেলে লতিফ দেওয়ান ঝগড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে লতিফ দেওয়ান ও পরিবারের অন্যরা কোদাল ও ধারালো দা দিয়ে নজরুল ও মজনুর মাথায় আঘাত করেন। ছেলেদের রক্ষা করতে গিয়ে বাবা আকবর আলী শেখকেও মারধর করে। তাদের চিৎকারে লোকজন এগিয়ে গেলে সবাই পালিয়ে যায়। জখম অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে নজরুল ও মজনুকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থা বেগতিক দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতেই মজনু মারা যান। নজরুল ইসলামকে ঢাকা মেডিকেলজ হাসপাতাল থেকে বেসরকারি আরেক হাসপাতালের নিবির পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে মজনুর লাশ বাড়িতে আনা হলে স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে।

শুক্রবার সকালে বাড়িতে দেখা যায়, স্বজনদের কান্না আর আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে। অভিযুক্ত লতিফ দেওয়ানের পরিবার সবাই পলাতক থাকায় বাড়ি-ঘরে তালা মারা রয়েছে। মজনুর বাবা আকবর আলী শেখ বলেন, তার পাঁচ ছেলের মধ্যে মজনু সবার বড়। মেঝ ও ছোট দুই ছেলে সিঙ্গাপুর থাকেন। তৃতীয় ছেলে নজরুল গোয়ালন্দ শহরে শিক্ষকতা করেন।

তিনি বলেন, প্রতিবেশী লালন দেওয়ানের জমি কেনার পর থেকে ভাতিজা লতিফ দেওয়ান মেনে নিতে পারছিলনা। এ নিয়ে উজানচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে মাপজোখের ব্যাপারে আবেদন করেছিলাম। জমি চাষ করতে গেলে তাদের জমির কিছু অংশ ভেঙেছে বলে ঝগড়া করে অতর্কিত হামলা চালায়। তারা মজনু ও নজরুলের মাথা এবং ঘারের ওপর কোদাল ও দা দিয়ে আঘাত করে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

উজানচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের কারনে মাপজোখের জন্য আকবর আলী শেখ আবেদন করেন। নোটিশ করলেও লতিফ দেওয়ানের পরিবার পরিষদে আসেননি। ওই বিরোধ নিষ্পত্তি না হওয়ায় পিটিয়ে ও কুপিয়ে মজনুকে হত্যা করেছে। ছোট ভাই নজরুর মুমর্ষ অবস্থায় ঢাকার একটি বেসরকারী হাসপাতালে রয়েছে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে আকবর শেখ ১২ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেন। রাত ১২টার দিকে মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। অভিযুক্ত পরিবারের সবাই পলাতক থাকায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। পুলিশ এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102