০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এপ্রিল থেকেই সব ধরনের ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ: অর্থমন্ত্রী

আগামী এপ্রিল থেকেই সব ধরনের ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ এবং আমানতের সুদ ৬ শতাংশ বাস্তবায়ন শুরু হবে। এ বিষয়ে সরকার কঠোর বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (১ জানুয়ারি) সচিবালয়ে সরকারি ক্রয় ও অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ এবং আমানতের সুদহার ৬ শতাংশ বাস্তবায়নের বিষয়টি প্রথম থেকেই ছিল। শুরুতে আমরা ধাপে ধাপে বাস্তবায়ন করার পরিকল্পনা করেছিলাম কিন্তু পরবর্তীতে যদি আমরা শুধু ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে ঋণের সুদহার ৯ শতাংশ বাস্তবায়ন করি তাহলে অনেক শিল্প ও খাত বাদ পড়তো।’

তিনি আরও বলেন, আমরা তাদের তিন মাস সময় দিয়েছি। আগামী এপ্রিল থেকেই আশা করি এটি বাস্তবায়ন হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সুদহার বাস্তবায়নে সার্কুলার ইস্যু করা হবে, না হলে মিস আন্ডারস্ট্যান্ডিং হবে। এটা অলরেডি সিদ্ধান্ত হয়েছে, সার্কুলার ইস্যু না করলেও তারা (ব্যাংকাররা) এটি বাস্তবায়ন করবে। তারাও তো সরকারের অংশ।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

এপ্রিল থেকেই সব ধরনের ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ: অর্থমন্ত্রী

পোস্ট হয়েছেঃ ১১:৫০:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ জানুয়ারী ২০২০

আগামী এপ্রিল থেকেই সব ধরনের ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ এবং আমানতের সুদ ৬ শতাংশ বাস্তবায়ন শুরু হবে। এ বিষয়ে সরকার কঠোর বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (১ জানুয়ারি) সচিবালয়ে সরকারি ক্রয় ও অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাংক ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ৯ শতাংশ এবং আমানতের সুদহার ৬ শতাংশ বাস্তবায়নের বিষয়টি প্রথম থেকেই ছিল। শুরুতে আমরা ধাপে ধাপে বাস্তবায়ন করার পরিকল্পনা করেছিলাম কিন্তু পরবর্তীতে যদি আমরা শুধু ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে ঋণের সুদহার ৯ শতাংশ বাস্তবায়ন করি তাহলে অনেক শিল্প ও খাত বাদ পড়তো।’

তিনি আরও বলেন, আমরা তাদের তিন মাস সময় দিয়েছি। আগামী এপ্রিল থেকেই আশা করি এটি বাস্তবায়ন হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সুদহার বাস্তবায়নে সার্কুলার ইস্যু করা হবে, না হলে মিস আন্ডারস্ট্যান্ডিং হবে। এটা অলরেডি সিদ্ধান্ত হয়েছে, সার্কুলার ইস্যু না করলেও তারা (ব্যাংকাররা) এটি বাস্তবায়ন করবে। তারাও তো সরকারের অংশ।