February 1, 2023, 7:50 am
শিরোনামঃ
রাজবাড়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতার উদ্বোধন গোয়ালন্দে পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচির উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফরিদপুরের টেপাখোলা কাদরিয়া চিশতীয়া পাক দরবার শরীফের উরস সম্পন্ন গোয়ালন্দে পুকুর সেচের পানিতে কৃষকের ফসল প্লাবিত, ক্ষতিপূরণ দাবি গোয়ালন্দে দৈনিক গণমুক্তি পত্রিকার ৫০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন কুয়াশায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে সাড়ে ১১ ঘন্টা পর ফেরি চলাচল শুরু চট্রগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশলীর উপর হামলার প্রতিবাদে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন ফরিদপুরে চিশ্‌তি মঞ্জিল দরবার শরীফের বাৎসরিক ওরশ অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দে কৃষকদের নিয়ে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত রাজবাড়ীতে মায়ের সাথে অভিমানে বিষ পানে ছেলে জিদ্দি’র মৃত্যু

ফরিদপুরে ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলু’র গানে বিমোহিত দর্শক-শ্রোতারা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, জুন ১২, ২০২২
  • 111 Time View
শেয়ার করুনঃ

মাহবুব পিয়াল, ফরিদপুরঃ বলেছিলে তাই চিঠি লিখে যাই, কথা আর সুরে সুরে, মন বলে, “তুমি রয়েছ যে কাছে” আঁখি বলে, “কত দূরে”- তুমি আজ কত দূরে-জগন্ময় মিত্রের রোমান্টিক আচ্ছন্ন প্রেমপত্রের-চিঠি গানটি যখন ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলু তার আবেগময় কণ্ঠে গাওয়া শুরু করলেন পুরো কবি জসীমউদ্দিন হলে তখন পিন পতন নীরাবতা।

৮২ বছর বয়সে ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলু তার কন্ঠের যাদু দিয়ে যা শুনালেন তাতে দর্শক-শ্রোতারা বিমোহিত হয়ে শুনতে লাগলেন। গান শেষে তুমুল করতালি,আরো গান শোনাতে হবে তাকে। একগানে দর্শক- শ্রোতারা মন ভরলো না। দর্শক- শ্রোতাদের অনুরোধে তিনি গেয়ে উঠলে শ্যামল মিত্রের “সেদিনের সোনাঝরা সন্ধ্যা,আর এমনি মায়াবী রাত মিলে, দু’জনে শুধায় যদি তোমারে কি দিয়েছি আমারেই তুমি কিবা দিল”-তার গানে বিস্ময় প্রকাশ করতে লাগলো দর্শক- শ্রোতারা।

প্রশংসা পেলেনে দেশের বরেন্য কবি, সাহিত্যিকসহ ভারত থেকে আগত অতিথি শিল্পীদের কাছ থেকেও।তারা প্রত্যাশা ব্যক্ত্ করেন বলেন, ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলু আরো দীর্ঘজীবি হউন এবং সুরের মুর্ছনায় মাতিয়ে রাখুন সংগীত পিপাসুদের ।

ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলুর বর্তমান বয়স ৮২বছর। তার বয়স যখন ১৮বছর তখন বরগুনায় তার গানের হাতে খড়ি ওস্তাদ মাখন লাল কর্মকারের কাছে।তার পর তিনি ফরিদপুর সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় স্টেজ প্রগ্রাম করেছেন অগনিত। তিনি রেডিওতেও গান পরিবেশন করেছেন।একসময় তিনি ফরিদপুর চলে আসেন।সেখানে অধ্যাপক আব্দুল গফুর, অধ্যাপক এম এ সামাদ ও ফিরোজার রহমান ফিরোজ মাস্টারের অনুরোধে মুসলিম কৃষ্টি সংঘ সংগীত বিদ্যালয়ে শিশুদের গান শেখানো শুরু করেন।দীর্ঘদিন তিনি সেখানেই গান শেখান। পরে তিনি জেলা শিল্পকলা একডেমী ও শিশু একাডেমী ফরিদপুরের সংগীত শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন কর্মরত ছিলেন।ফরিদপুর সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বহু ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে তার,অনেকেই এখন প্রতিষ্টিত শিল্পী। ২০১৪ সালে সংগীতে বিশেষ অবদান রাখায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সম্মানান লাভ করেছেন তিনি। এছাড়াও বিভিন্ন সময় তিনি গানের স্বীকৃতি স্বরুপ বিভিন্ন পদক ও উপহার সামগ্রী পেয়েছে।এইগুনী শিল্পী দীর্ঘদিন বেঁচে থেকে সংগীতকে অরো উচ্চতায় নিয়ে যাবেন সেই প্রত্যাশা ফরিদপুরবাসীর।

গত শুক্রবার (১০ জুন) রাতে কবি জসীমউদ্দিন হলে আর্ন্তজাতিক শিল্পীমৈত্রী সংগঠন বিশ্বভরা প্রাণ এর জেলা সম্মেলনে অনুষ্টানে ওস্তাদ খায়রুল ইসলাম নীলু সংগীত পরিবেশন করেন। ওই অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।

বিশ্বভরা প্রাণ এর কেন্দ্রীয় সভাপতি জাহান বশীর, বিএমএ ফরিদপুরের সভাপতি ডা: আসম জাহাঙ্গীর চৌধুরী টিটো, বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা: ইউনুস আলী, সরকারী রাজেন্দ্র কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোশারর্ফ আলী, কবি শওকত আলী জহিদ, বিশ্বভরা প্রাণ এর ভারত কেন্দ্রিয় কমিটি সভাপতি বিধুরা ধর, সাধারন সম্পাদক শাশ্বতী ব্যানার্জী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অধ্যাপক আলতাফ হোসেন, কবি আলীম আল রাজী আজাদসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102