July 5, 2022, 3:36 pm
শিরোনামঃ
গরু নিয়ে আমাদের আর দৌলতদিয়া ঘাটে অপেক্ষা করতে হয়না ডিবি পুলিশের অভিযানে দৌলতদিয়ায় সাত হাজার ইয়াবাসহ দুইজন গ্রেপ্তার শিক্ষক হত্যা ও লাঞ্ছনার প্রতিবাদে গোয়ালন্দে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত গোয়ালন্দের উজানচর ইউনিয়নে বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত গোয়ালন্দ থানা পুলিশের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও হেরোইনসহ গ্রেপ্তার ৩ রাজবাড়ীতে কৃষকদের মাঝে কৃষি যন্ত্রপাতি ও পিকআপ ভ্যান বিতরন রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশনের ৪৫ সদস্যের দ্বি-বার্ষিক পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন পাবনার আ.লীগ নেতা গোয়ালন্দে হত্যায় ব্যবহৃত ট্রলার চালক গ্রেপ্তারের পর আদালতে স্বীকারোক্তি গোয়ালন্দে পুলিশের অভিযানে বিভিন্ন মামলার ৫ আসামী গ্রেপ্তার গোয়ালন্দে বাড়ির পুকুরে পরে মানসিক ভারসাম্যহীন শিশুর মৃত্যু

কালুখালীতে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, মে ১৯, ২০২২
  • 54 Time View
শেয়ার করুনঃ

কামাল হোসেন, রাজবাড়ীঃ সরকার সারাদেশে কৃষি যন্ত্রাংশ ক্রয়ের ক্ষেত্রে ভর্তূকি প্রদান করলেও রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার কৃষকরা সেই ভর্তূকির সবটুকু ভোগ করতে পারছেনা। তাদের ভর্তূকি মূল্যের চেয়েও ২৮ হাজার টাকা অধিক মূল্য দিয়ে সিডারসহ পাওয়ার টিলার কিনতে হচ্ছে। যা দরিদ্র কৃষকদের জন্য কষ্টসাধ্য।

কৃষকরা জানায়, বাজার মূল্যের চেয়েও ২৮ হাজার টাকা দাম বেশি ধরায় আমরা প্রতিবাদ করেছি। কিন্তু উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পূর্নিমা হালদার আমাদের কোন কথা শুনছেন না। তিনি অনুমোদিত ডিলার ছাড়া সিডারসহ পাওয়ার টিলার কিনতে দিচ্ছেন না। বিক্ষুদ্ধ কৃষকরা এ ব্যাপারে সুব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কালুখালী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পূর্নিমা হালদার জানান, কালুখালীর ১৩ জন কৃষক সিডারসহ পাওয়ার টিলার কিনতে পারবেন। সরকার প্রত্যেক কৃষকের জন্য ১ লাখ টাকা ভর্তুকির ব্যবস্থা রেখেছে। অনুমোদিত ডিলার ছাড়া এই পন্য কেনার সুযোগ নেই। অনুমোদিত ডিলারের ২৮ হাজার টাকা অধিক মূল্য গ্রহনের বিষয় জানতে চাইলে পূর্নিমা হালদার জানান, এ তথ্য সঠিক নয়।

কালুখালী উপজেলা জাতীয় কৃষক সমিতির সভাপতি কমরেড নজরুল ইসলাম জানায়, এই সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। সরকারের প্রদত্ত ভর্তুকি নিয়ে আমলারা যে প্রতারনা ফাঁদ পেতেছে তা ছিন্ন করা হবে। কৃষক প্রতারিত হলে আমরা আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবো।
উপজেলা কৃষক আন্দোলনের নেতা শাহ আজিজ জানান, সরকার কৃষকের প্রতি উদার। তার স্বার্থ বিরোধী কোন কাজ সফল হতে দেওয়া যাবে না।

অভিযোগকারী কৃষক বিল্লাল মন্ডল জানান, সিডারসহ পাওয়ার টিলার দেওয়ার আগেই উপজেলা কৃষি অফিসার পূর্নিমা হালদার আমাদের নিকট থেকে ২০ হাজার টাকা করে গ্রহন করেছে। তবে এ টাকার কোন প্রকার রশিদ প্রদান করেননি।

উপজেলা কৃষি অফিসার পূর্নিমা হালদার এ প্রসঙ্গে বলেন, জামানত হিসেবে ২০ হাজার টাকা করে নেওয়া হয়েছে। কেউ ফেরত চাইলে তা ফেরত দেওয়া হবে।

কৃষকরা এব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
DeveloperAsif
themesba-lates1749691102