May 18, 2022, 2:54 pm
শিরোনামঃ
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের দাম বাড়লেও লোকসানে চাষিরা রাজবাড়ীতে কৃষকদের মাঝে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ গোয়ালন্দে জমি নিয়ে সংঘর্ষে কৃষক নিহত, মামলা দায়ের, গ্রেপ্তার ২ দৌলতদিয়ায় বেশি দামে তেল বিক্রি করায় ৪টি দোকানে জরিমানা গোয়ালন্দে হেরোইনসহ যুবক গ্রেপ্তার

গোয়ালন্দে জমি নিয়ে সংঘর্ষে কৃষক নিহত, মামলা দায়ের, গ্রেপ্তার ২

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, মে ১৪, ২০২২
  • 35 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার বিষ্ণপুরে শুক্রবার দুপুরে জমির মাপঝোপ নিয়ে সংঘর্ষে কৃষক মান্নান ফকির ওরফে মান্দু ফকির (৬৫) নিহতের ঘটনায় ছেলে বাদী হয়ে শনিবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা করেছে। এতে ১৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৮জন। এ ঘটনায় পুলিশ ২জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ জানায়, শনিবার সকালে নিহত মান্নান ফকির ওরফে মান্দু ফকিরের লাশ ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে থেকে পরিবারের কাছে আনা হয়েছে। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে লাশ বাড়ি আনা হয়। এর আগে দুপুরে নিহতের ছেলে তরিকুল ইসলাম ফকির বাদী হয়ে অভিযুক্ত নুরাল দেওয়ান ওরফে নুরাল মেম্বারের ১০ ছেলে ও তাঁদের স্ত্রীসহ মোট ১৫জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারভুক্তি ১১নম্বর আসামী মিজানুর দেওয়ানের স্ত্রী মিতু খাতুনকে (১৯) ও মৃত নুরুল ইসলাম দেওয়ানের স্ত্রী রোকেয়া বেগমকে (৬০) গ্রেপ্তার করে। তাদেরকে গ্রেপ্তারের পর রাজবাড়ীর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বিষ্ণপুর গ্রামের মান্নান ফকিরের শ্যালক প্রতিবেশী আবেদ মন্ডল এলাকার মৃত নুরাল দেওয়ান ওরফে নুরাল মেম্বারের ছেলে মোমিন দেওয়ানের কাছে সাড়ে ১১ শতাংশ জমি বিক্রি করে। ওই দাগের মান্নান ফকির ও আবেদন মন্ডলের জমি রয়েছে। জমির সীমানা বুঝিয়ে দিতে মমিন দেওয়ান আবেদন মন্ডলের ওপর চাপ সৃষ্টি করে। গত শুক্রবার (১৩ মে) সকালে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও উভয় পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

রায় পছন্দ হয়নি জানিয়ে নুরাল দেওয়ানের ছেলেরা বাধা দেন। খুটি বসাতে গেলে নুরাল দেওয়ানের বড় ছেলে মমিন দেওয়ানসহ অন্যরা লাঠি দিয়ে মান্নান ফকিরের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। এ নিয়ে দুই পরিবারের সংঘর্ষে রক্তাত্ব জখম হন মান্নান ফকির ওরফে মান্দু ফকির (৬৫), স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৫৫), ছেলে তরিকুল ইসলাম (৪০), মেয়ে হামিদা খাতুন (২০), ছোট ভাই হান্নানের ছেলে মিরাজ ফকির (৩০) ও রাজা ফকির (২৮) এবং নুরাল দেওয়ানের ছেলে মোহিন দেওয়ান (৩০) সহ দুইজন। তাদেরকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে গুরতর আহত মান্নান ফকির, মেয়ে হামিদা খাতুন ও ভাতিজা রাজা ফকিরকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসারত অবস্থায় বিকেলে তিনি মারা যান।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, শনিবার দুপুরে নিহতের ছেলে থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পর দুইজনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শনিবার বিকেলে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর শেষে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। অভিযুক্ত অপর আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ মাঠে কাজ করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102