May 18, 2022, 4:01 pm
শিরোনামঃ
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ তিন ফেরি বিকল, ঘাট এলাকায় পণ্যবাহী গাড়ির চাপ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ তরুণ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল রাজবাড়ীতে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রনে সচেতনতামূলক সভা রাজবাড়ীর পুলিশ পরিদর্শক অধীর চন্দ্র রায়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের দাম বাড়লেও লোকসানে চাষিরা রাজবাড়ীতে কৃষকদের মাঝে ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ গোয়ালন্দে জমি নিয়ে সংঘর্ষে কৃষক নিহত, মামলা দায়ের, গ্রেপ্তার ২ দৌলতদিয়ায় বেশি দামে তেল বিক্রি করায় ৪টি দোকানে জরিমানা গোয়ালন্দে হেরোইনসহ যুবক গ্রেপ্তার

পাংশায় আইডি জালিয়াতি করে টাকা হাতিয়ে নেওয়া ব্যক্তি শনাক্ত

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, এপ্রিল ২০, ২০২২
  • 36 Time View
শেয়ার করুনঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা ও উপজেলার বিভিন্ন সরকারি কার্যালয়ের আইডি হ্যাক করে ২৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া ব্যক্তিকে শনাক্ত করা গেছে বলে জানা গেছে। তাঁর নাম রাশেদা খাতুন। তবে তিনি জাহানারা বেগম নামের আরেকটি জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করেন। তাঁর বাড়ি কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার জানিপুর ইউনিয়নের শেখপাড়া বিহাড়িয়া গ্রামে। ওই নারী জাহানারা নামের যে পরিচয়পত্র ব্যবহার করতেন, সেটির ঠিকানা দেওয়া হয়েছে কুষ্টিয়া পৌর শহরের কালিশংকরপুর গ্রামে।

উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, এই কার্যালয় থেকে পাংশা উপজেলার বিভিন্ন সরকারি কার্যালয়ের কর্মকর্তা–কর্মচারীদের বেতন–ভাতা পরিশোধ করা হয়। প্রতি মাসে ১ হাজার ২০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বেতন দেওয়া হয়। গত মার্চে পাংশা উপজেলা হিসাবরক্ষণ কার্যালয়ের হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলামের আইডি হ্যাক করে প্রায় ২৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এতে উপজেলার বিভিন্ন সরকারি কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীর বেতন–ভাতা বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনার পর ওই কর্মকর্তাকে ঢাকায় বদলি করা হয়। অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাকে। তিনি তাঁর আইডি-পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে বেতনের ব্যবস্থা করেন।

ওই নারীকে শনাক্ত করা সম্ভব হয় ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক কুষ্টিয়া সদর শাখার মাধ্যমে। ওই শাখার ব্যবস্থাপক দিবাকর বিট বলেন, রাশেদা বেগম নামের এক নারী মার্চে ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে আসেন। তিনি ২২ লাখ টাকার চেক জমা দেন। এত টাকা তুলতে চাওয়ায় তাঁর সন্দেহ হয়। বিষয়টি তিনি যাচাইয়ের জন্য নেন। এরপর ওই নারী ব্যাংক থেকে সটকে পড়েন।

দিবাকর বিট আরও বলেন, ‘বিষয়টি আমি আমাদের প্রধান কার্যালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংককে অবহিত করি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই নারীর ব্যাংক হিসাবে অল্প সময়ের ব্যবধানে প্রায় কোটি টাকা জমা হয়েছে। এসব টাকা বিভিন্ন সরকারি অফিস থেকে আনা হয়েছে। ডাচ্–বাংলা ব্যাংকের কুষ্টিয়া বুথ ও ঝিনাইদহের সিটি ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং থেকেও টাকা তোলা হয়েছে। এরপর ওই হিসাব নম্বরটি ব্লক করে রাখা হয়েছে।’

রাজবাড়ী জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বলেন, ‘পাংশা উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাকে বদলি করার পর তাঁর জায়গায় আমি অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছি। রাশেদা নামের এক নারী ওই টাকা তুলেছেন বলে শুনেছি। কিন্তু বিষয়টি কেন্দ্রীয়ভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন, ঘটনার পর উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ের কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম থানায় এসে মৌখিকভাবে জানিয়েছিলেন। তাঁকে এ বিষয়ে লিখিতভাবে অভিযোগ দিতে বলা হয়েছিল। এরপর তিনি আর আসেননি। অভিযোগ পেলে পুলিশ অবশ্যই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Rajbarimail
Developed by POS Digital
themesba-lates1749691102