০১:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মাদক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিতে হবে : গণপূর্তমন্ত্রী

গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, ঘুষ, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। অবৈধ অর্থ উপার্জনকারীদের সম্পর্কে ঘৃণার উদ্রেক করতে হবে। মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিংকে যারা প্রশ্রয় দেন, তাদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর সরকারি তিতুমীর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘আলোকিত ৫০ বছর’ শিরোনামে আয়োজিত পুনর্মিলনী উৎসবে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘অন্যায়ভাবে সম্পত্তি আরোহণ, যেনোতেনো উপায়ে কোটি কোটি টাকার মালিক হওয়া, যেকোনো মূল্যে সরকারি সম্পত্তি লুট করার প্রবণতা রুখতে মানসিকভাবে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রয়োজন। কেননা নৈতিকতা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধ করতে না পারলে সভ্যতা সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই এ অবক্ষয় রুখতে হবে। জাতিকে এ অবক্ষয় থেকে ফিরিয়ে আনতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বৈষয়িক উন্নয়ন দেশে অনেক হয়েছে। অর্থনৈতিক মুক্তি এসেছে অনেকটাই। কিন্তু নৈতিকতা ও মূল্যবোধের মুক্তির কাঙ্ক্ষিত জায়গায় আমরা এখনো পৌঁছাতে পারিনি।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘শুধু পুঁথিগত বিদ্যা নয়, শিক্ষার্থীদের সততা, নৈতিকতা, মূল্যবোধ এবং দেশপ্রেমের শিক্ষা দিতে হবে। এ চার বিষয়ের সমন্বয় ঘটাতে পারলে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আমরা জাতির ভবিষ্যৎ রচনায় স্বপ্ন দেখতে পারি। এ স্বপ্ন দেখতে না পারলে ত্রিশ লাখ শহীদের রক্ত, দুই লাখ মা-বোনের আত্মত্যাগ এবং আমাদের মহান নেতাদের আত্মোৎসর্গ অর্থহীন হয়ে যাবে।’

সমসাময়িক রাজনীতি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘রাজনীতিতে একটি খারাপ সংস্কৃতি চালু হয়েছে। তা হলো, রাজনীতিতে এলেই বাড়ি-গাড়ি, কোম্পানির মালিক, শত শত কোটি টাকার মালিক হতে হবে। পদ-পদবী পেতেই হবে। এটা রাজনীতির মূল সংস্কৃতি নয়। নিজেকে উৎসর্গ করার নাম রাজনীতি। পরার্থে নিজেকে নিবেদনের নাম রাজনীতি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজ বিশ্ব নেতৃত্ব বলেন বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। সেই রোল মডেলের বাংলাদেশকে পরিপূর্ণতা দিতে হলে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, ইমারত নির্মাণের মতো বৈষয়িক উন্নয়নের পাশাপাশি মানসিকতারও পরিবর্তন করতে হবে।’

জনগণের জন্য সরকার, সরকারের জন্য জনগণ নয় শেখ হাসিনার সরকার এ ধারণায় বিশ্বাস করেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা বিস্তারে যদি ভূমিকা রাখতে না পারি তাহলে মন্ত্রীত্ব অর্থহীন হয়ে যাবে। যে জাতি প্রকৃতপক্ষে শিক্ষিত নয়, যে জাতি নৈতিকতার মানদণ্ডে উচ্চ জায়গায় পৌঁছাতে পারে না। একটি শিক্ষিত সমাজই দিতে পারে একটি ভালো রাষ্ট্র। প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত ছাত্র দিতে পারে ভবিষ্যতের অপার সম্ভাবনার হাতিছানি। সে স্বর্ণালী জায়গায় আমরা সকলকে নিয়ে পৌঁছাতে চাই।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সরকারি তিতুমীর কলেজের পঞ্চাশ বছর উদযাপন উৎসবের আহ্বায়ক ও কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশী, মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন (বীর প্রতিক), মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক (বীর প্রতিক), সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন আহমেদ, সাবেক রাষ্ট্রদূত সোহরাব হোসেন, ঢাকা সাংবাদিক ইয়নিয়নের সভাপতি আবু জাফর সূর্য, কলেজের অধ্যক্ষ মো. আশরাফ হোসেন, উপাধ্যক্ষ ড. আবেদা সুলতানা প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি বেলুন উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন ও স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

জনপ্রিয় পোস্ট

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল

মাদক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিতে হবে : গণপূর্তমন্ত্রী

পোস্ট হয়েছেঃ ০৯:৪৫:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯

গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, ঘুষ, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। অবৈধ অর্থ উপার্জনকারীদের সম্পর্কে ঘৃণার উদ্রেক করতে হবে। মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিংকে যারা প্রশ্রয় দেন, তাদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর সরকারি তিতুমীর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘আলোকিত ৫০ বছর’ শিরোনামে আয়োজিত পুনর্মিলনী উৎসবে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘অন্যায়ভাবে সম্পত্তি আরোহণ, যেনোতেনো উপায়ে কোটি কোটি টাকার মালিক হওয়া, যেকোনো মূল্যে সরকারি সম্পত্তি লুট করার প্রবণতা রুখতে মানসিকভাবে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রয়োজন। কেননা নৈতিকতা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধ করতে না পারলে সভ্যতা সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই এ অবক্ষয় রুখতে হবে। জাতিকে এ অবক্ষয় থেকে ফিরিয়ে আনতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বৈষয়িক উন্নয়ন দেশে অনেক হয়েছে। অর্থনৈতিক মুক্তি এসেছে অনেকটাই। কিন্তু নৈতিকতা ও মূল্যবোধের মুক্তির কাঙ্ক্ষিত জায়গায় আমরা এখনো পৌঁছাতে পারিনি।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘শুধু পুঁথিগত বিদ্যা নয়, শিক্ষার্থীদের সততা, নৈতিকতা, মূল্যবোধ এবং দেশপ্রেমের শিক্ষা দিতে হবে। এ চার বিষয়ের সমন্বয় ঘটাতে পারলে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আমরা জাতির ভবিষ্যৎ রচনায় স্বপ্ন দেখতে পারি। এ স্বপ্ন দেখতে না পারলে ত্রিশ লাখ শহীদের রক্ত, দুই লাখ মা-বোনের আত্মত্যাগ এবং আমাদের মহান নেতাদের আত্মোৎসর্গ অর্থহীন হয়ে যাবে।’

সমসাময়িক রাজনীতি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘রাজনীতিতে একটি খারাপ সংস্কৃতি চালু হয়েছে। তা হলো, রাজনীতিতে এলেই বাড়ি-গাড়ি, কোম্পানির মালিক, শত শত কোটি টাকার মালিক হতে হবে। পদ-পদবী পেতেই হবে। এটা রাজনীতির মূল সংস্কৃতি নয়। নিজেকে উৎসর্গ করার নাম রাজনীতি। পরার্থে নিজেকে নিবেদনের নাম রাজনীতি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজ বিশ্ব নেতৃত্ব বলেন বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। সেই রোল মডেলের বাংলাদেশকে পরিপূর্ণতা দিতে হলে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, ইমারত নির্মাণের মতো বৈষয়িক উন্নয়নের পাশাপাশি মানসিকতারও পরিবর্তন করতে হবে।’

জনগণের জন্য সরকার, সরকারের জন্য জনগণ নয় শেখ হাসিনার সরকার এ ধারণায় বিশ্বাস করেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা বিস্তারে যদি ভূমিকা রাখতে না পারি তাহলে মন্ত্রীত্ব অর্থহীন হয়ে যাবে। যে জাতি প্রকৃতপক্ষে শিক্ষিত নয়, যে জাতি নৈতিকতার মানদণ্ডে উচ্চ জায়গায় পৌঁছাতে পারে না। একটি শিক্ষিত সমাজই দিতে পারে একটি ভালো রাষ্ট্র। প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত ছাত্র দিতে পারে ভবিষ্যতের অপার সম্ভাবনার হাতিছানি। সে স্বর্ণালী জায়গায় আমরা সকলকে নিয়ে পৌঁছাতে চাই।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সরকারি তিতুমীর কলেজের পঞ্চাশ বছর উদযাপন উৎসবের আহ্বায়ক ও কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশী, মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন (বীর প্রতিক), মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক (বীর প্রতিক), সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন আহমেদ, সাবেক রাষ্ট্রদূত সোহরাব হোসেন, ঢাকা সাংবাদিক ইয়নিয়নের সভাপতি আবু জাফর সূর্য, কলেজের অধ্যক্ষ মো. আশরাফ হোসেন, উপাধ্যক্ষ ড. আবেদা সুলতানা প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি বেলুন উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন ও স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।