০৮:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের পূনর্মিলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠান

শামীম শেখ ও মইন মৃধা, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সংগঠন “গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ” এর পূনর্মিলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠান-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ মে) দিনব্যাপী ফরিদপুরের বিনোদন কেন্দ্র পার্ক ফান প্যারাডাইসে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যাবস্হাপনায় ছিলেন গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ত্ব করেন গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সভাপতি, গোয়ালন্দ রাবেয়া ইদ্রিস মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. আব্দুল কাদের শেখ।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর শেখ তিতু, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার, পৌরসভার প্যানেল মেয়র নাসির উদ্দিন, গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সুজ্জল, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মাহাবুব রাব্বানী, গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মো. সিদ্দিক মিয়া, সম্মিলিত নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কোমল কুমার সাহা প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, চ্যানেল আইয়ের খুদে গানরাজ সুমাইয়া আক্তার শানু, স্থানীয় শিল্পী নুরুল আনোয়ার মিলন, নাসিমা আক্তার, রফিকুল ইসলাম সালু, নৃত্য পরিবেশন করেন নাট্য অভিনেত্রী তমা আক্তার, আবৃত্তি করেন অপূর্ব সাহা দ্বিজেন, জাদু প্রদর্শনী করেন বাদল বিশ্বাস প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব দ্বিজেন সাহা ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনু্ষ্ঠানে গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সদস্য ছাড়াও, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সদস্যবৃন্দ, জন প্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও সুধীবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

আলোচনা সভা ও সাংস্তৃতিক অনুষ্ঠান শেষে সম্মিলিত নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের আয়োজিত তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবে অংশগ্রহণকারী সকল সদস্যদের মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়া পুণিমলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে লটারি শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরুস্কার প্রদান করা হয়।

ট্যাগঃ
রিপোর্টারের সম্পর্কে জানুন

Rajbari Mail

গোয়ালন্দে ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত, কমিটি ঘোষণা হবে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে

গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের পূনর্মিলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠান

পোস্ট হয়েছেঃ ০৮:১৫:২৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

শামীম শেখ ও মইন মৃধা, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সংগঠন “গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ” এর পূনর্মিলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠান-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ মে) দিনব্যাপী ফরিদপুরের বিনোদন কেন্দ্র পার্ক ফান প্যারাডাইসে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যাবস্হাপনায় ছিলেন গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ত্ব করেন গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সভাপতি, গোয়ালন্দ রাবেয়া ইদ্রিস মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. আব্দুল কাদের শেখ।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর শেখ তিতু, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার, পৌরসভার প্যানেল মেয়র নাসির উদ্দিন, গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সুজ্জল, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মাহাবুব রাব্বানী, গোয়ালন্দ বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মো. সিদ্দিক মিয়া, সম্মিলিত নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কোমল কুমার সাহা প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, চ্যানেল আইয়ের খুদে গানরাজ সুমাইয়া আক্তার শানু, স্থানীয় শিল্পী নুরুল আনোয়ার মিলন, নাসিমা আক্তার, রফিকুল ইসলাম সালু, নৃত্য পরিবেশন করেন নাট্য অভিনেত্রী তমা আক্তার, আবৃত্তি করেন অপূর্ব সাহা দ্বিজেন, জাদু প্রদর্শনী করেন বাদল বিশ্বাস প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব দ্বিজেন সাহা ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনু্ষ্ঠানে গোয়ালন্দ নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সদস্য ছাড়াও, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সদস্যবৃন্দ, জন প্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও সুধীবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

আলোচনা সভা ও সাংস্তৃতিক অনুষ্ঠান শেষে সম্মিলিত নাট্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের আয়োজিত তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবে অংশগ্রহণকারী সকল সদস্যদের মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়া পুণিমলনী ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে লটারি শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরুস্কার প্রদান করা হয়।